National

অনেকটা কমে দেশে ৫০ হাজারি ঘরে সংক্রমণ

দেশে একদিনে সংক্রমণ উল্লেখযোগ্যভাবে কমল। যা অবশ্যই দেশের সকলের জন্য স্বস্তির। আগামী দিনেও এই ধারা বজায় থাকে কিনা সেদিকেই তাকিয়ে সকলে।

নয়াদিল্লি : সেপ্টেম্বরে অস্বাভাবিকভাবে বেড়েছে দৈনিক সংক্রমণ। অক্টোবরে সেই দৈনিক বৃদ্ধি নজরে না পড়লেও খুব একটা নিচেও নামেনি সংক্রমণ। ৭০ হাজারি ঘরেই অধিকাংশ সময় ঘুরেছে সংক্রমণ। কিন্তু গত একদিনে দেশে সংক্রমণ উল্লেখযোগ্যভাবে নিচে নেমেছে। ৫০ হাজারি ঘরে ঢুকে পড়েছে গত একদিনের নতুন করে সংক্রমণ।

অন্যদিকে এদিন সুস্থ হয়ে ওঠা মানুষের সংখ্যা অনেক বেশি। সংক্রমিতের চেয়ে সুস্থ হয়ে ওঠা মানুষের সংখ্যা বেশি হওয়াটা অবশ্য অনেকটা ভরসা যোগাচ্ছে।


আকর্ষণীয় খবর পড়তে ডাউনলোড করুন নীলকণ্ঠ.in অ্যাপ

গত একদিনে দেশে নতুন করে সংক্রমিতের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৫৫ হাজার ৩৪২ জনে। গত একদিনে দেশে ১০ লক্ষ ৭৩ হাজার ১৪টি নমুনা পরীক্ষা হয়েছে। নমুনা পরীক্ষা গত দিনের চেয়ে বেড়েছে।

গত একদিনের রোগীর সংখ্যা বৃদ্ধির হাত ধরে দেশে মোট সংক্রমিতের সংখ্যাটা ৭১ লক্ষের ঘরেই রয়ে গেল। দীর্ঘ সময় পর একদিনের মোট সংক্রমণ মোট সংক্রমিতের সংখ্যাকে লক্ষের ঘরে একধাপ ওঠাতে অক্ষম হল। ৭১ লক্ষ ৭৫ হাজার ৮৮০ জনে দাঁড়িয়েছে দেশে মোট সংক্রমিতের সংখ্যা।

গত একদিনে সংক্রমিতের সংখ্যার চেয়ে সুস্থ হয়ে ওঠা মানুষের সংখ্যা অনেক বেশি হওয়ায় দেশে অ্যাকটিভ রোগীর সংখ্যা ফের কমেছে। দাঁড়িয়েছে ৮ লক্ষ ৩৮ হাজার ৭২৯ জন। একদিনে কমেছে ২৩ হাজার ১২৪ জন। একদিনে দেশে অ্যাকটিভ রোগীর সংখ্যা এতটা কমা এখনও পর্যন্ত রেকর্ড।

দেশে মৃতের সংখ্যাও গত ৯ দিন ধরেই হাজারের নিচে থাকছে। এদিন অনেকটা কমেছে মৃতের সংখ্যা। গত ৯ দিন ৩ অঙ্কের ঘরেই রয়েছে মৃতের সংখ্যা।

গত একদিনে দেশে করোনায় মৃত্যু হয়েছে ৭০৬ জনের। এদিনের মৃতের সংখ্যার হাত ধরে দেশে মোট করোনায় মৃতের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ১ লক্ষ ৯ হাজার ৮৫৬ জন।

করোনা রোগী ও মৃত্যু যেমন বেড়ে চলেছে তেমনই অন্যদিকে লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে সুস্থ হয়ে ওঠার হার। গত একদিনে সুস্থ হয়ে ওঠা মানুষের সংখ্যা সংক্রমিতের সংখ্যার চেয়ে অনেক বেশি হয়েছে।

গত ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়ে উঠেছেন ৭৭ হাজার ৭৬০ জন। গত দিনের চেয়ে অনেকটাই বেড়েছে সুস্থ হয়ে ওঠা মানুষের সংখ্যা।

দেশে মোট করোনামুক্ত মানুষের সংখ্যা এদিন দাঁড়িয়েছে ৬২ লক্ষ ২৭ হাজার ২৯৫ জনে। দেশে সুস্থতার হার ৮৬.৭৮ শতাংশ। — সংবাদ সংস্থার সাহায্য নিয়ে লেখা

Show More

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *