Kolkata

ফের বাড়ল রাজ্যে দৈনিক মৃত্যু, ২৪ হাজারে নমুনা পরীক্ষা

রাজ্যে করোনায় দৈনিক মৃত্যু ফের বাড়ল। প্রতিদিনই একটু একটু করে বেড়ে চলেছে দৈনিক মৃতের সংখ্যা।

কলকাতা : রাজ্যে বাড়ছে করোনা রোগীর সংখ্যা। প্রতিদিনই তা কিছু করে বেড়ে যাচ্ছে। তবে যা বাড়ছে তাতে এটা এখনও বলা যায় যে রাজ্যে এখন দৈনিক সংক্রমণ একটা জায়গায় ঘোরাফেরা করছে। গত একদিনে ফের নতুন করে করোনা রোগী বেড়েছে ২ হাজার ৮১৬ জন। যা আগের দিনের তুলনায় সামান্য বেশি। একদিনে এত করোনা রোগী রাজ্যে এর আগে পাওয়া যায়নি। তবে তা পাওয়া গিয়েছে ২৪ হাজারের ওপর নমুনা পরীক্ষা থেকে। যা কার্যত একটা রেকর্ড।

গত একদিনে নমুনা পরীক্ষা হয়েছে ২৪ হাজার ৪৭টি। তারমধ্যে ২ হাজার ৮১৬ জনের দেহে করোনার হদিশ মিলেছে। তার আগের দিনও নমুনা পরীক্ষার সংখ্যা ছিল ২২ হাজারের ওপর। ফলে গত একদিনে প্রায় ২ হাজার বেশি নমুনা পরীক্ষা হয়েছে। সে তুলনায় রোগী বৃদ্ধির সংখ্যা নগণ্য। রাজ্যে এখন মোট করোনা রোগীর সংখ্যা দাঁড়াল ৮৩ হাজার ৮০০ জন। যার মধ্যে অ্যাকটিভ রোগীর সংখ্যা ২২ হাজার ৯৯২ জন।


পড়ুন আকর্ষণীয় খবর, ডাউনলোড নীলকণ্ঠ.in অ্যাপ

রাজ্যে করোনায় মৃত্যুও বাড়ছে। গত একদিনে রাজ্যে ৬১ জন করোনায় প্রাণ হারিয়েছেন। যা এ যাবত দৈনিক হিসাবে সর্বোচ্চ। গত একদিনে রেকর্ড সংখ্যক মানুষের প্রাণ কাড়ল করোনা। ফলে রাজ্যে করোনায় মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়াল ১ হাজার ৮৪৬ জন। গত একদিনে যে ৬১ জন প্রাণ হারিয়েছেন তাঁদের মধ্যে কলকাতায় প্রাণ হারিয়েছেন ২৫ জন ও উত্তর ২৪ পরগনায় প্রাণ হারিয়েছেন ১৩ জন।

কলকাতায় এখনও পর্যন্ত একদিনে ২৫ জন করোনায় মারা যাননি। এছাড়া হাওড়ায় ৯ জন, দার্জিলিংয়ে ৪ জন ও দক্ষিণ ২৪ পরগনায় ৪ জন করে প্রাণ হারিয়েছেন। আলিপুরদুয়ার, উত্তর দিনাজপুর, দক্ষিণ দিনাজপুর, মালদা, পূর্ব বর্ধমান ও হুগলিতে ১ জন করে মানুষের প্রাণ কেড়েছে করোনা।

রাজ্যে একই সঙ্গে বহু রোগী সুস্থ হয়ে ফিরছেন। গত একদিনে ২ হাজার ৭৮ জন করোনা রোগী সুস্থ হয়ে হাসপাতাল থেকে বাড়ি ফিরেছেন। যার হাত ধরে এদিন রাজ্যে করোনামুক্ত মানুষের সংখ্যা ৫৮ হাজার ৯৬২ জনে পৌঁছেছে। সুস্থতার হার ৭০ শতাংশ পার করেছে ২ দিন আগেই। এদিন তা আরও বৃদ্ধি পেল। দেশে যেখানে এখন সুস্থতার হার ৬৭ শতাংশ পার করেছে, সেখানে রাজ্যে সুস্থতার হার দাঁড়িয়েছে ৭০.৩৬ শতাংশ। — রাজ্যসরকারের স্বাস্থ্য দফতরের দৈনিক বুলেটিন-এর সাহায্য নিয়ে লেখা

Show Full Article

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button