World

মাথায় হাত মেষপালকদের, ১ সপ্তাহ ধরে টানা মিলন ৮০ হাজার ভেড়ার

যেখানে সেখানে, যখন তখন। তাদের নিরস্ত করা নিছক অসাধ্য হয়ে উঠেছে। তাও একদিন আধদিন নয়, টানা ১ সপ্তাহ ধরে সঙ্গমে লিপ্ত ভেড়ারা।

৮০ হাজার ভেড়াকে থামানো যাচ্ছে না। চুটিয়ে চলছে সঙ্গম। যেখানে সেখানে, যখন তখন। তাদের নিরস্ত করা নিছক অসাধ্য হয়ে উঠেছে। তাও একদিন আধদিন নয়, টানা ১ সপ্তাহ ধরে সঙ্গমে লিপ্ত ভেড়ারা। এমন কাণ্ডের কারণও রয়েছে। জলে গোলা ভায়াগ্রার প্রভাব। যদিও বুঝে শুনে সঙ্গমের ক্ষমতা বৃদ্ধির কথা মাথায় রেখে ভেড়ার পাল যে ওই ওষুধ খায়নি তা অনুমেয়। তাহলে এতগুলো ভেড়া ওষুধ পেল কোথা থেকে? সে কাহিনিও রীতিমত চমকপ্রদ।

আয়ারল্যান্ডের রিঙ্গাস্কিডি বন্দরের কাছে ভিড়েছিল একটি জাহাজ। সেই জাহাজে ফাইজার নামে বিখ্যাত ওষুধ প্রস্তুতকারী সংস্থা ভায়াগ্রার বিশাল মজুত তুলছিল। দুর্ঘটনাবশত ৭৫৫ টন অশোধিত ওষুধ জলে পড়ে যায়। মিশে যায় বন্দরের জলে। সেই জল ভেড়ার পাল পান করে। জলে গোলা ওষুধ চলে যায় তাদের শরীরে। আর যায় কোথায়! তারপর থেকে মিলন কার্যত তাদের বাতিকে পরিণত হয়েছে।

ভেড়াদের শান্ত করার কম চেষ্টা করেননি মেষপালকরা। কিন্তু অনেক লড়াই করেও কিছু করতে না পেরে আপাতত তাঁরা হাল ছেড়ে দিয়েছেন। একরকম যা পারে করুক মানসিকতা নিয়ে থম মেরে গেছেন তাঁরা! মেষপালকরা বলছেন তাঁদের ভেড়ারা কেমন যেন সেক্সম্যানিয়াক হয়ে উঠেছে! এক সপ্তাহ কেটে গিয়েছে। এখনও ভেড়াদের সঙ্গম ইচ্ছা প্রশমিত হচ্ছেনা। তবে বিশেষজ্ঞদের ধারণা ওষুধের প্রভাব কাটতে আরও ১ সপ্তাহ নেবে। তারপরই ভেড়ারা স্বাভাবিক আচরণ শুরু করবে। কিন্তু তার আগে! এখন এক সপ্তাহ এসব দেখতে হবে ভেবেই মাথায় হাত পড়েছে মেষপালকদের। — সংবাদ সংস্থার সাহায্য নিয়ে লেখা

Show More

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button