Health

সন্তান কি গাছে ভূত দেখতে পাচ্ছে, অজানা আওয়াজ পাচ্ছে, বিষয়টি উড়িয়ে দেওয়ার নয়

বাড়ির ছোট সদস্যরা অনেক সময় দাবি করে তারা গাছে ভূত দেখতে পাচ্ছে। অথবা জানায় দেওয়াল থেকে কিসের যেন শব্দ হচ্ছে। বিষয়টি কিন্তু উড়িয়ে দেওয়ার নয়।

অনেক সময় বাড়ির বাচ্চারা বলে সে দূরের গাছে ভূতকে বসে থাকতে দেখতে পাচ্ছে। অথবা অনেক সময় তার দাবি থাকে সে ভিনগ্রহের প্রাণির সঙ্গে কথা বলছে।

অথবা এমনও হয় যে সে বলে দেওয়াল থেকে কিসের যেন শব্দ হচ্ছে। এসব তাদের মনের ভুল বলে উড়িয়ে দেওয়া যায়না। কারণ একটি গবেষণা বলছে এর পিছনে রয়েছে অন্য কারণ।

শিশুরা অনেক সময় দাবি করে তাদের এক বন্ধু আছে। তার সঙ্গে সে কথাও বলে। কিন্তু তাকে দেখা যায়না। এগুলো তাদের মানসিক কারণে হয়ে থাকে।

তবে গবেষণা বলছে এর পিছনে রয়েছে তাদের বংশ পরম্পরার দায়। এগুলোকে জেনেটিক কারণ হিসাবেই দেখছেন গবেষকেরা।

জিনে থাকা বিষয় কোনওভাবে প্রকাশ পাচ্ছে তাদের মধ্যে দিয়ে। ফলে তারা একটা দুনিয়া বানিয়ে নিচ্ছে। সেখানে তারা তাদের কিছু কল্পনাপ্রসূত চরিত্রকে জায়গা দেয়। তাদের সঙ্গে সময় কাটায়।

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের বোস্টন চিলড্রেনস মিউজিয়ামের গবেষকেরা বলছেন এটা এমন শিশুদের ক্রোমোজোমাল সমস্যা। ১৮ বছর বয়স হওয়ার আগে যে কোনও সময় কারও মধ্যে এমন কল্পনাপ্রসূত বিষয়গুলি প্রকট হতে পারে।

যাদের মধ্যে সবচেয়ে বেশি সংখ্যায় হয় তারা ১৩ বছরের নিচের শিশু। ১৩৭টি শিশুর ওপর পরীক্ষা চালান গবেষকেরা। অটিজমে আক্রান্ত শিশুদের ক্ষেত্রে এই প্রবণতা সবচেয়ে বেশি থাকে।

তবে গবেষকেরা জানাচ্ছেন এমন সমস্যা তৈরি হলে দ্রুত চিকিৎসা করাতে হবে। তাহলে সারা জীবনের জন্য শিশুটির এই সমস্যা কেটে যেতে পারে। — সংবাদ সংস্থার সাহায্য নিয়ে লেখা

Show More

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button