Health

বয়স্কদের মধ্যে খারাপ স্বপ্ন দেখার প্রবণতা আসলে এক মারণ রোগের ইঙ্গিত

বয়স্কদের মধ্যে অনেকে খারাপ স্বপ্ন দেখেন। রাতে ঘুমের মধ্যে খারাপ স্বপ্ন কিন্তু আপেক্ষিক ঘটনা নয়। এর পিছনে রয়েছে গভীর ইঙ্গিত।

প্রৌঢ় বয়সে অনেকে রাতে ঘুমের মধ্যে খারাপ স্বপ্ন দেখেন। যাকে দুঃস্বপ্ন বলে অনেকেই সকালে ভুলেও যান। কিন্তু এভাবে সপ্তাহে ১ দিন করেও দুঃস্বপ্ন দেখা আসলে এক ভয়ংকর রোগের পদধ্বনি।

এই নিয়মিত দুঃস্বপ্ন দেখা অনেক আগে থেকেই জানান দেয় রোগটি থাবা বসাতে চলেছে। যা সারানোর এখনও কোনও অব্যর্থ ওষুধ তৈরি হয়নি। এমনকি তার কোনও আগাম ইঙ্গিতও স্পষ্ট ছিলনা চিকিৎসকদের কাছে।

কিন্তু একদল গবেষক এবার দাবি করেছেন যে ৩ হাজার ৮১৮ জন মানুষের কাছ থেকে সংগ্রহ করা টানা ১২ বছরের তথ্য পর্যালোচনা করে তাঁরা দেখেছেন এ রোগের আগাম ইঙ্গিত লুকিয়ে থাকে এই নিয়মিত দুঃস্বপ্নের মধ্যে।

পারকিনসনস এখন বিশ্বব্যাপী এক মারণ ব্যাধিতে পরিণত হয়েছে। মানুষ একবার পারকিনসনসে আক্রান্ত হলে তারপর আর তাঁকে সারিয়ে তোলা মুশকিল হচ্ছে। কারণ এখনও এই রোগের কোনও অব্যর্থ ওষুধ তৈরিই হয়নি।

এতদিন বোঝাও যেত না যে কাকে কখন পারকিনসনস নিজের শিকার করবে। এই গবেষণা কিন্তু একটা আশার আলো দিল।

গবেষকেরা জানাচ্ছেন, যাঁরা প্রৌঢ় বয়স থেকে নিয়মিতভাবে দুঃস্বপ্ন দেখেন তাঁদের দ্রুত চিকিৎসকের পরামর্শ নেওয়া উচিত। কারণ এটা পারকিনসনসের পদধ্বনি হতে পারে।

এতে চিকিৎসকেরা প্রয়োজনীয় পরীক্ষা করে তাঁর চিকিৎসা শুরু করতে পারবেন। সেক্ষেত্রে পারকিনসনস থাবা বসানোর আগেই তাকে রোখার বন্দোবস্ত পাকা করতে পারবেন চিকিৎসকেরা। — সংবাদ সংস্থার সাহায্য নিয়ে লেখা

Show More

Leave a Reply

Your email address will not be published.