Health

করোনার নয়া উপসর্গ গোলাপি চোখ, বলছেন বিশেষজ্ঞেরা

করোনা ছড়িয়ে পড়া ঠেকাতে মাস্ক পরা বা হাত ধোওয়ার সঙ্গে চোখের যত্নে বিশেষ জোর দিচ্ছেন বিশেষজ্ঞেরা

জ্বর, কাশি, শ্বাসকষ্ট করোনার সাধারণ উপসর্গ। কিন্তু বিশেষজ্ঞেরা বলছেন করোনা সংক্রমণ হতে পারে চোখ থেকেও। হয়তো কারও জ্বর, কাশি, শ্বাসকষ্টের মত উপসর্গ নেই, কিন্তু চোখ ক্রমশ গোলাপি হচ্ছে। যাকে চিকিৎসকেরা কনজাঙ্কটিভাইটিস বলে থাকেন। তা করোনার উপসর্গ হতেই পারে। চিনে এমন উদাহরণ পাওয়া গিয়েছে যে পিঙ্ক আই বা গোলাপি চোখ বা হাল্কা কনজাঙ্কটিভাইটিস-এর সমস্যা নিয়ে আসা রোগী আসলে করোনা আক্রান্ত।

বাংলায় চোখের রোগ কনজাঙ্কটিভাইটিসকে জয় বাংলা বলেও ব্যাখ্যা করেন অনেকে। বলা ভাল বাংলায় একে জয় বাংলা বলতেই বেশি অভ্যস্ত ছিলেন মানুষজন। এটা দেখে কারও মাথায় নাও আসতে পারে যে আসলে তিনি করোনা সংক্রমিত। কিন্তু সংখ্যায় অত্যন্ত কম হলেও এমন এক উপসর্গ দেখা যাচ্ছে করোনা সংক্রমিতদের ক্ষেত্রে। চিকিৎসকেরা তাই করোনা রুখতে চোখের বিশেষ যত্নের ওপরই জোর দিচ্ছেন।

চিকিৎসকেরা জানাচ্ছেন যাঁরা কন্টাক্ট লেন্স ব্যবহার করেন তাঁদের এই লেন্স আপাতত ব্যবহার থেকে দূরে থাকতে। বরং সে জায়গায় সাধারণ চশমা ব্যবহার করার পরামর্শ দিচ্ছেন তাঁরা। চোখের যত্ন নিতে বলছেন তাঁরা।

চিকিৎসকেরা জানাচ্ছেন, কনজাঙ্কটিভাইটিসের মত উপসর্গ নিয়ে যাঁরা আসছেন তাঁদের চোখে একটা অস্বস্তি থাকতে পারে, চোখ দিয়ে জল গড়াতে পারে, চোখ ক্রমশ লাল হতে পারে, ফোটোফোবিয়া দেখা দিতে পারে, চোখে যন্ত্রণাও হতে পারে। এক্ষেত্রে চোখ দিয়ে যে জল বা রস বার হচ্ছে তা করোনা ছড়ানোর জন্য যথেষ্ট। — সংবাদ সংস্থার সাহায্য নিয়ে লেখা

Show More

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button