Sports

কমনওয়েলথে এবার গয়নার মত পদক, আঁকা থাকবে স্থানীয় রাস্তা, খালবিলের মানচিত্র

চোখ ধাঁধানো উদ্বোধনের মধ্যে দিয়ে ২২ তম কমনওয়েলথ গেমস শুরু হয়ে গেল। সেখানে পদকে এবার অভিনবত্বের ছোঁয়া। পদকে আঁকা থাকবে স্থানীয় রাস্তাঘাট ও খালবিলের মানচিত্র।

অলিম্পিকস বা এশিয়াডের মতই কমনওয়েলথ গেমসেও সোনা, রূপো ও ব্রোঞ্জের পদক অপেক্ষা করছে প্রতিযোগীদের জন্য। প্রতি ইভেন্টেই প্রথম ৩ জনের গলায় ঝুলবে পদক।

এতদিন ধরে যে সোনা, রূপো বা ব্রোঞ্জের পদক দেখে সকলে অভ্যস্ত বার্মিংহামে বসা ২২ তম কমনওয়েলথ গেমসে কিন্তু ঠিক তেমনই পদক দেখতে পাওয়া যাবে না। বরং এই প্রতিযোগিতায় সোনা, রূপো ও ব্রোঞ্জ মিলিয়ে যে ১ হাজার ৮৭৫টি পদক দেওয়া হতে চলেছে তার প্রতিটিতে থাকছে গয়নার ছোঁয়া।

অনেকটা অলঙ্কারের মত দেখতে হচ্ছে পদকগুলি। যা অবশ্যই অভিনবত্বের দাবি রাখে। বার্মিংহামের স্কুল অফ জুয়েলারি-র ৩ জন ছাত্র এই পদক ডিজাইন করার দায়িত্বে ছিলেন। তাঁদের সৃজনশীলতার স্পর্শে কমনওয়েলথের পদক এবার দেখার মত।

এখানেই কিন্তু পদকের গুণগান শেষ নয়। চমক আরও আছে। ওয়েস্ট মিডল্যান্ড এলাকার রাস্তাঘাট ও খালবিলকে অনেক উঁচু থেকে যেমন দেখাবে তার একটি মানচিত্র এই পদকগুলিতে দেখা যাবে। যা নিজের জায়গায় অভিনব ভাবনা। এখানেই যেহেতু বসেছে এই ক্রীড়া মহাযুদ্ধের আসর, তাই এই জায়গার একটা প্রাকৃতিক মানচিত্রও পদকে জায়গা পেয়েছে।


সব মিলিয়ে পদক ডিজাইনে যে বিশেষ গুরুত্ব এবার দেওয়া হয়েছে তা বলার অপেক্ষা রাখে না। ফলে পদক জয়ীরা কেবল একটি পদকই পাবেন না। পাবেন একটি দুরন্ত সৃজনশীল গয়নাও। — সংবাদ সংস্থার সাহায্য নিয়ে লেখা

Show Full Article

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button