Health

আর হাল্কাভাবে নেওয়া গেলনা, মাঙ্কিপক্স নিয়ে চিন্তার কথা শোনাল হু

চিন্তাটা যে বাড়তে পারে তা গত কয়েকদিনে প্রায় সব দেশই আন্দাজ করা শুরু করেছিল। এবার বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা হু-এর বার্তায় চিন্তার ভাঁজ আরও পুরু হল।

বিশ্ববাসীর এখন ঘর পোড়া গরুর মত অবস্থা। আড়াই বছর আগেই তাঁরা জানতে পারেন চিনে এক অজানা অচেনা রোগের প্রাদুর্ভাব। তখনও তাঁদের ধারনা ছিল রোগটা হয়তো চিনেই আটকে থাকবে। কিন্তু মাত্র কয়েক মাসের মধ্যেই তা গোটা বিশ্বে আতঙ্কের আর এক নাম হয়ে ছড়িয়ে পড়ে। যার কোপ থেকে এখনও রেহাই মেলেনি বিশ্বের।

তাই মাঙ্কিপক্স শব্দটা নতুন হলেও ইতিমধ্যেই চিন্তার কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে। ক্রমশ তা বিভিন্ন দেশে থাবা বসাচ্ছে। ইতিমধ্যেই ১২টি দেশে মাঙ্কিপক্সে আক্রান্ত রোগীর সন্ধান পাওয়া গিয়েছে।

প্রতিদিনই নতুন নতুন দেশের নাম যুক্ত হচ্ছে এই তালিকায়। আফ্রিকার একটি অংশে এই রোগ ছড়ালেও তা বিশ্বের আর কোথাও দেখা যায়নি। এবার কিন্তু ইউরোপ, আমেরিকা ও অস্ট্রেলিয়ায় তার দেখা মিলেছে।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থাও আর মাঙ্কিপক্সকে হাল্কাভাবে নিতে পারল না। হু জানিয়েছে, বিশ্বের ১২টি দেশে ৯২ জন মাঙ্কিপক্স আক্রান্ত রোগী নিশ্চিত। এছাড়া আরও ২৮ জনের দেহে এই রোগ থাবা বসিয়েছে বলেই মনে করা হচ্ছে।

যে ১২টি দেশে মাঙ্কিপক্স ছড়িয়েছে তার মধ্যে রয়েছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র, কানাডা, অস্ট্রেলিয়া, ব্রিটেন, স্পেন, জার্মানি, পর্তুগাল, বেলজিয়াম, ফ্রান্স, নেদারল্যান্ডস, ইতালি ও সুইডেন। তবে এখনও কোনও রোগীর মৃত্যুর খবর মেলেনি।

তবে বিশ্বের সব দেশের জন্যই সতর্কবার্তা জারি করেছে হু। তারা মনে করছে এই রোগ এবার আরও দেশে দ্রুত ছড়িয়ে পড়তে পারে। — সংবাদ সংস্থার সাহায্য নিয়ে লেখা

Show More

Leave a Reply

Your email address will not be published.