Health

মোটা হওয়ার জন্য ডিজিটাল মার্কেটিংকে দায়ী করল হু

মোটা হওয়ার প্রবণতা বাড়ছে। বিশেষত ছোটদের মধ্যে। এজন্য ডিজিটাল মার্কেটিংকে দায়ী করল বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা হু। এ নিয়ে সরবও হয়েছে হু।

বিশ্বে মোটা হয়ে যাওয়ার প্রবণতা বাড়ছে। বিশেষত তা বাড়ছে ইউরোপ ও আমেরিকায়। ইউরোপে মোটা হওয়ার সমস্যা যথেষ্ট উদ্বেগের চিত্র তুলে ধরতে শুরু করেছে।

এখন বিশ্বে ইউরোপে মোটা হওয়ার প্রবণতার চেয়ে এগিয়ে আছে কেবল আমেরিকা। ইউরোপ জুড়ে এভাবে মোটা হওয়ার প্রবণতা বেড়ে যাওয়া তো আছেই, সব মিলিয়ে বিশ্বজুড়েই এই প্রবণতা বৃদ্ধির জন্য ডিজিটাল মার্কেটিংকে কাঠগড়ায় চাপিয়েছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা হু।

কিছুটা অবাক শোনালেও হু জানিয়েছে, বিশ্বজুড়েই মোটা হওয়ার প্রবণতা বেড়েছে। আর সেই প্রবণতা গত ২ বছরে আরও ভয়ানক আকার নিয়েছে।

অনলাইনে নানা লোভনীয় খাবার কেনার সুযোগ তৈরি হয়েছে। কিন্তু তা অনেক ক্ষেত্রেই অস্বাস্থ্যকর। অনলাইনে অর্ডার করে এসব খাওয়ার প্রবণতা ছোটদের মধ্যে সবচেয়ে বেশি।

যা কিন্তু আখেরে ওবেসিটি বা মোটা হওয়ার প্রবণতা বাড়িয়ে দিচ্ছে। আর তা বাড়ছে এই ডিজিটাল মার্কেটিংয়ের কারণেই।

শুধু ডিজিটাল মার্কেটিংই নয়, সেইসঙ্গে অনলাইন গেমও এই মোটা হওয়ার প্রবণতা বাড়াচ্ছে বলে দাবি করেছে হু। হু জানাচ্ছে, ছোটরা এখন অনলাইন গেম খেলতে ব্যস্ত। অনেকটা সময় এভাবে বসে বসে খেলার ফলে তাদের মধ্যে মোটা হওয়ার প্রবণতা বেড়ে যাচ্ছে।

হু-এর হিসাব বলছে এখন বিশ্বে ৬০ শতাংশ মানুষই এই মোটা হয়ে যাওয়ার সমস্যার শিকার। ছোটদের মধ্যে প্রতি ৩ জনে ১ জন এই সমস্যায় পড়ছে। এই পরিস্থিতি আরও ভয়ানক আকার নিয়েছে গত ২ বছরে। — সংবাদ সংস্থার সাহায্য নিয়ে লেখা

Show More

Leave a Reply

Your email address will not be published.