State

ঘর থেকে উদ্ধার মা ও ২ শিশুকন্যার পোড়া দেহ, পলাতক স্বামী, শাশুড়ি

মঙ্গলবার সকাল থেকেই পাশের বাড়ির অশান্তি কানে আসছিল প্রতিবেশিদের। কিছুক্ষণ পর সেই আওয়াজ থেমেও যায়। হয়তো রোজকার মতই স্বামী স্ত্রীর ঝামেলা থিতিয়ে গেছে, এই ভেবে যে যার মত কাজেও লেগে পড়েন। কিন্তু অশান্তির আগুন যে থিতু হয়নি তা তাঁরা টের পান সন্ধেবেলায়। পাশের ঘর থেকে ধোঁয়া বার হতে দেখে আঁতকে ওঠেন প্রতিবেশিরা। ছুটে যান সেখানে। দেখেন ঘরের দরজা বন্ধ। দরজা ভেঙে ঘরের ভিতর মা ও ২ শিশুকন্যার অগ্নিদগ্ধ দেহ পড়ে থাকতে দেখেন তাঁরা। সাথে সাথে আগুনে ঝলসে যাওয়া ৩ জনের দেহ নিয়ে এলাকাবাসী ছোটেন হাসপাতালে। সেখানে অগ্নিদগ্ধদের মৃত বলে ঘোষণা করেন চিকিৎসকেরা।

২ মেয়েসহ স্ত্রীকে আগুনে পুড়িয়ে মেরেছে সাইন দফাদার নামে এক ব্যক্তি। এই অভিযোগে ব্যাপক চাঞ্চল্য ছড়ায় নদিয়ার তেহট্ট থানার পূর্ব নওদাপাড়া এলাকায়। মৃত মহিলার নাম সাগরী বিবি। তার ২ মেয়ের ১ জনের বয়স ৬। ছোটটির বয়স ৪। অভিযোগ, স্বামী স্ত্রীর মধ্যে প্রায়ই ঝামেলা হত। মঙ্গলবার সেই ঝামেলার জেরে স্ত্রীকে ওই ব্যক্তি মারধর করে বলে দাবি প্রতিবেশিদের। পুলিশের ধারণা, সেই অশান্তির জেরেই স্ত্রীকে খুন করেছে তার স্বামী। আক্রোশবশত স্ত্রীর সাথে সাথে ২ শিশুকন্যাকেও পুড়িয়ে মারা হয়েছে বলে দাবি মৃতার পরিবারের। মেয়ে ও নাতনিদের খুনের পিছনে মদত রয়েছে অভিযুক্তের মায়েরও। এই মর্মে তেহট্ট থানায় অভিযোগ দায়ের করেছে মৃতার পরিবার। ঘটনার পর থেকেই মৃতার স্বামী ও শাশুড়ি পলাতক। তাদের খোঁজ শুরু করেছে পুলিশ। ঠিক কি কারণে কন্যাসন্তানসহ মহিলাকে খুন করা হল তা খতিয়ে দেখছে তারা।

Show More

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button