State

স্কুলে তুলকালাম, হেডস্যারকে চাঁটি মারলেন ভূগোলের স্যার, পাল্টা এল ঘুষি

রাজ্যে বৃহস্পতিবার থেকে সব স্কুল খুলে যাচ্ছে। অষ্টম থেকে দ্বাদশ শ্রেণি পর্যন্ত স্কুলেই ক্লাস হবে। তার আগে নদিয়ার একটি স্কুলে তুলকালাম কাণ্ড ঘটে গেল।

রাজ্যে সব স্কুলে অষ্টম থেকে দ্বাদশ শ্রেণির ক্লাস শুরু হবে বৃহস্পতিবার থেকে। সেজন্য প্রস্তুতি নিচ্ছেন শিক্ষকরা। স্কুল পরিস্কার হচ্ছে। স্যানিটাইজ করা হচ্ছে। এই সময় এক তুলকালাম কাণ্ড ঘটে গেল নদিয়ার একটি স্কুলে।

ঘটনার সূত্রপাত একটি স্যালারি স্লিপকে কেন্দ্র করে। নদিয়ার কৃষ্ণনগর কলেজিয়েট স্কুলের হেডস্যার মনোরঞ্জন বিশ্বাসের কাছে অনেকদিন ধরেই নাকি স্যালারি স্লিপ চাইছিলেন স্কুলের ভূগোল স্যার নিমাই মজুমদার। কিন্তু হেডস্যার তাঁকে তা দিচ্ছিলেন না। এর প্রতিবাদে নিমাইবাবু একটি প্ল্যাকার্ড নিয়ে হেডস্যারের ঘরের সামনে ধর্নায় বসেন।

নিমাইবাবুর অভিযোগ তিনি এভাবে ধর্নায় বসায় তাঁকে শারীরিকভাবে নিগ্রহ করেন হেডস্যার। যদিও প্রত্যক্ষদর্শীদের মতে, নিমাইবাবু প্ল্যাকার্ড নিয়ে ধর্নায় বসার পর হেডস্যার অন্য শিক্ষকদেরও বোঝানোর চেষ্টাই করছিলেন কেন তিনি স্যালারি স্লিপ দিতে পারছেন না।

সেই সময় নাকি নিমাইবাবু উঠে আসেন। তারপর আচমকাই মনোরঞ্জনবাবু মাথায় সজোরে চাঁটি মারেন। প্রাথমিক আকস্মিকতা কাটিয়ে পাল্টা জবাব দেন হেডস্যারও। তিনি সজোরে একটি ঘুষি চালিয়ে দেন ভূগোল শিক্ষক নিমাইবাবুকে। লেগে যায় তুলকালাম।

হৈচৈ শুনে ছুটে আসেন শিক্ষক থেকে অশিক্ষক কর্মীরা। সকলে মিলে ২ জনকে ছাড়িয়ে আলাদা করেন। বিষয়টি নিয়ে এখনও স্কুলে চাপা উত্তেজনা রয়েছে।

প্রশ্ন হল স্কুলের শিক্ষকরাই যদি এভাবে প্রকাশ্যে হাতাহাতিতে জড়িয়ে পড়েন, তাহলে তা থেকে কি বার্তা ছাত্রদের কাছে পৌঁছচ্ছে? এতে কি ছাত্ররা প্রকৃত শিক্ষার অধিকারী হবে।

Show More

Leave a Reply

Your email address will not be published.