State

স্কুলের শিক্ষকরাই শিশু পাচারকারী, অভিযোগে গ্রেফতার অধ্যক্ষ সহ ৮ শিক্ষক

স্কুলের অধ্যক্ষ সহ মোট ৮ জন শিক্ষক শিশু পাচারের সঙ্গে যুক্ত! ভয়ংকর এই অভিযোগ সামনে এসেছে। পুলিশ অধ্যক্ষ সহ ৮ জন শিক্ষককে গ্রেফতার করেছে।

স্কুলের শিক্ষকদের নিয়ে মানুষের মনে এক সম্ভ্রম থাকে। একটি জাতি গড়ে তোলায় স্কুল শিক্ষকদের ভূমিকা প্রশ্নাতীত। সেখানে একটি স্কুলের প্রধান শিক্ষক সহ ৮ শিক্ষক কিনা শিশু পাচারের সঙ্গে যুক্ত!

বাঁকুড়ার কালপাথর এলাকার মানুষ যেন এখনও বিশ্বাস করতে পারছেন না যে কেন্দ্রীয় সরকারি জওহর নবোদয় বিদ্যালয়ের শিক্ষকদের একাংশ ওই স্কুলের প্রধান শিক্ষকের সঙ্গে হাত মিলিয়ে এমন এক জঘন্য কাজ করছিল।


পড়ুন আকর্ষণীয় খবর, ডাউনলোড নীলকণ্ঠ.in অ্যাপ

গত রবিবার কালপাথর এলাকায় একটি মারুতি ভ্যানে ২টি শিশুকে জোর করে তোলার চেষ্টা করছিল জওহর নবোদয় বিদ্যালয়ের অধ্যক্ষ কমল কুমার রাজোরিয়া। রাস্তার ওপর এমন ঘটনা নজরে পড়ে স্থানীয় পঞ্চায়েত প্রধানের। তিনি দ্রুত লোকজনকে হাঁক দিয়ে ডাকেন।

বেগতিক বুঝে সেখান থেকে চম্পট দেয় কমল কুমার। কিন্তু মারুতি ভ্যানে থাকা ২ শিক্ষিকা পালাতে পারেনি। তাদের সঙ্গে ৪টি শিশুও ছিল। স্থানীয়রা তাদের ঘিরে ধরে পুলিশে খবর দেন। জিজ্ঞাসাবাদে তারা অসংলগ্ন যুক্তি সাজাতে থাকে।

এরপরই স্থানীয় মানুষ পথ অবরোধ করেন। শিশু পাচার করছেন স্কুলের মাস্টারমশাইরা বলে দাবি করে ক্ষোভে ফেটে পড়েন তাঁরা।

এই পরিস্থিতিতে পুলিশ দ্রুত ব্যবস্থা নেয়। গ্রেফতার করা হয় অধ্যক্ষ কমল কুমার রাজোরিয়া সহ স্কুলের ৮ শিক্ষককে। যার মধ্যে ৩ জন শিক্ষিকা। ধৃত এক শিক্ষিকার বাড়ি থেকে ৫টি শিশু উদ্ধার হয়।

অভিযোগ, স্থানীয় দুর্গাপুর স্টিল প্লান্ট মেন গেট এলাকা সহ বেশ কিছু এলাকা থেকে শিশুদের কিনে নিত এই অধ্যক্ষ সহ অন্য ধৃতরা। এজন্য মায়েদের হাতে মোটা টাকা তুলে দেওয়া হত।

তারপর আরও বড় অঙ্কের বিনিময়ে মূলত নিঃসন্তান মায়েদের হাতে তুলে দেওয়া হত শিশুদের। ভিন রাজ্যেও শিশুদের পাচারের পরিকল্পনা ছিল ওই অধ্যক্ষ সহ বাকিদের।

Show Full Article
Back to top button