State

নাম না করে রাজীবের বিরুদ্ধে ফের পোস্টার তৃণমূল কর্মীদের

মুকুল রায় তৃণমূলে ফিরেছেন। এবার কী রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায়ের পালা? এ প্রশ্ন উঠছে। এদিকে এমন সম্ভাবনা তৈরি হতেই ফের নাম না করে রাজীবের বিরুদ্ধে পড়ল পোস্টার।

মুকুল রায় তৃণমূলে ফেরার দিন তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন আরও অনেকে ফিরবেন। এই অনেকে কারা? এটাই এখন বড় প্রশ্ন।

কারণ অনেকে ফিরবেন বলার পাশাপাশি তৃণমূলনেত্রী একথাও জানিয়ে দিয়েছেন যে ভোটের আগে যাঁরা বিশ্বাসঘাতকতা করেছেন তাঁদের দলে ফেরানো হবে না। সেই দলে অবশ্য কারা পড়ছেন তা পরিস্কার করেননি তিনি। আর তাতেই একটা জল্পনা তৈরি হয়েছে রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায়কে ফেরানো নিয়ে।

তাতেই ক্ষুব্ধ রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিধানসভা এলাকার তৃণমূল কর্মীরা। রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায়ের নাম কোথাও করা হয়নি ঠিকই, তবে যে পোস্টার, ব্যানার পড়েছে তাতে বিশ্বাসঘাতক, মীরজাফরদের ডোমজুড় বাসীর কাছে কোনও জায়গা নেই একথা স্পষ্ট করে দেওয়া হয়েছে।

শনিবার এসব পোস্টার ব্যানার দেখা যায় হাওড়ার বাঁকড়ায়। এর আগে গত বুধবারও নাম না করেই রাজীবের বিরুদ্ধে পোস্টার পড়েছিল। এদিন ফের পড়ল। তাও তাৎপর্যপূর্ণভাবে মুকুল রায় তৃণমূলে ফেরার পরদিনই। ব্যানার, পোস্টাররে তলায় লেখা আছে ডোমজুড় কেন্দ্র তৃণমূল কংগ্রেস।

বিধানসভা নির্বাচনের আগে তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে যোগ দেওয়া রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায় তাঁর কেন্দ্র ডোমজুড় থেকে বিজেপি প্রার্থী হয়ে পরাজিত হন। তারপরই তাঁকে সম্প্রতি উল্টো সুরে কথা বলতে দেখা যায়।

রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায় কার্যত তাঁর দল বিজেপির বিরুদ্ধে গিয়েই জানিয়েছিলেন, মানুষের বিপুল জনসমর্থন নিয়ে আসা নির্বাচিত সরকারের সমালোচনা ও মুখ্যমন্ত্রীর বিরোধিতা করতে গিয়ে কথায় কথায় দিল্লি আর ৩৫৬ ধারার জুজু দেখালে বাংলার মানুষ ভালভাবে নেবেন না। সকলের উচিত রাজনীতির উর্ধ্বে উঠে ‘কোভিড’ ও ‘ইয়াস’ এই ২ দুর্যোগে বিপর্যস্ত বাংলার মানুষের পাশে থাকা।

রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায়ের এই বার্তার পরই জল্পনা প্রকট হয় যে তাহলে কী এবার রাজীবও তৃণমূলে ফিরতে চাইছেন? এদিকে এই জল্পনা তৈরি হওয়ার পরই ২ দিন নাম না করে রাজীবকে ফেরানোর কার্যত বিরোধিতাই করলেন ডোমজুড়ের তৃণমূল কর্মীরা।

Show More
Back to top button