State

গ্রীষ্মের ছুটিতে কী রোপওয়ের আনন্দ থেকে বঞ্চিত হবেন দার্জিলিংয়ের পর্যটকেরা?

দরজায় গ্রীষ্ম কড়া নাড়ল বলে। সমতলের দাবদাহ থেকে বাঁচতে পাহাড়ে পাড়ি দেওয়ার এই তো মোক্ষম সময়। আর গরমের ছুটিতে তো বাঙালির অন্যতম বেড়ানোর জায়গাই হিমালয়ের কোলে কোথাও একটা। সেই তালিকায় রয়েছে দার্জিলিংও। তল্পিতল্পা গুটিয়ে একটু ঠান্ডা হতে তাই দার্জিলিংয়ের বিকল্প নেই বাঙালির কাছে। সেই ছুটি কাটানোর আনন্দে কোথাও যেন ছন্দপতন হল পাহাড়ে। অনির্দিষ্টকালের জন্য দার্জিলিংয়ে বন্ধ হয়ে গেল রোপওয়ে পরিষেবা। সিংমারি থেকে তাকভর চা বাগান পর্যন্ত প্রায় ৫ কিলোমিটার দীর্ঘ পথে এই পরিষেবা ছিল পর্যটকদের কাছে খুবই জনপ্রিয়। ১৯৮৮ সাল থেকে দার্জিলিংয়ে রোপওয়ে পরিষেবা চালু হলেও ২০০৩ সালে দুর্ঘটনার জেরে তা বন্ধ হয়ে যায়। ২০০৮-এ ফের চালু হয় রোপওয়ে। সম্প্রতি গোর্খা জনমুক্তি মোর্চার আন্দোলন চলাকালীনও বন্ধ ছিল এই পরিষেবা। পাহাড়ে শান্তি ফিরতেই কেবল তার ধরে আবার যাত্রা শুরু করে রোপওয়ে।

পশ্চিমবঙ্গের শৈলশহরের নয়নাভিরাম প্রাকৃতিক দৃশ্য দেখতে রোপওয়ে পর্যটকদের কাছে অন্যতম আকর্ষণ। সেই আকর্ষণ আপাতত থমকে গেল আইনি জটিলতার গেরোয়। লিজের সময়সীমা পেরিয়ে যাওয়ায় মঙ্গলবার থেকে বন্ধ করে দেওয়া হল রোপওয়ে পরিষেবা। লিজ পুনর্নবীকরণ না হওয়া অবধি এই পরিষেবা বন্ধ রাখতে নির্দেশিকা জারি করেছে পশ্চিমবঙ্গ রাজ্য বন উন্নয়ন নিগম।


Show Full Article

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button