Sports

প্রতারণার শিকার বীরেন্দ্র সেহওয়াগের স্ত্রী আরতি সেহওয়াগ

তাঁর সই জাল করে তাঁর ২ বিজনেস পার্টনার একটি সংস্থার কাছ থেকে সাড়ে ৪ কোটি টাকার ঋণ নিয়েছিলেন। এখন তাঁরা সেই ঋণ শোধ করতে পারছেন না। পুলিশের কাছে তাঁর সংস্থার ২ পার্টনারের বিরুদ্ধে এই অভিযোগ দায়ের করলেন ভারতীয় ক্রিকেট তারকা বীরেন্দ্র সেহওয়াগের স্ত্রী আরতি সেহওয়াগ। পুলিশ অভিযোগ গ্রহণ করেছে। তদন্ত শুরু হয়েছে।

বীরেন্দ্র সেহওয়াগের স্ত্রী আরতির একটি সংস্থা রয়েছে এসএমজিকে অ্যাগ্রো। এই সংস্থায় আরতির ২ পার্টনার রয়েছেন। আরতির অভিযোগ, মেসার্স লখনপাল প্রোমোটারর্স এন্ড বিল্ডার্স প্রাইভেট লিমিটেড নামে একটি সংস্থার কাছ থেকে তাঁর ২ বিজনেস পার্টনার সাড়ে ৪ কোটি টাকার ঋণ নেন। আরতি সেহওয়াগের সই জাল করে তাঁরা এই ঋণ নেন বলে অভিযোগ আরতির। পরে তাঁরা সেই টাকা শোধ করতে পারেননি। আরতি পুলিশের কাছে দাবি করেছেন, অন্য সংস্থাকে প্রভাবিত করার জন্য তাঁর স্বামী বীরেন্দ্র সেহওয়াগের নাম কাজে লাগাতেন ওই ২ পার্টনার।

আরতি তাহলে এসব জানলেন কীভাবে? পুলিশ জানাচ্ছে যে সংস্থা ঋণ দিয়েছিল তাদের ২টি পোস্ট ডেটেড চেক দিয়েছিলেন অভিযুক্তরা। তবে তা আরতির জানা ছিলনা। পরে টাকা শোধ না হওয়ায় মেসার্স লখনপাল প্রোমোটারর্স এন্ড বিল্ডার্স প্রাইভেট লিমিটেড কর্তৃপক্ষ আদালতের দ্বারস্থ হয়। এরপরই আরতি সেহওয়াগ পুরো বিষয়টি জানতে পারেন। কারণ তাঁর সই সেখানে রয়েছে। যা তিনি জাল করা হয়েছে বলে দাবি করছেন। পুরো বিষয়টির তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ। — সংবাদ সংস্থার সাহায্য নিয়ে লেখা

Show More

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button