World

আইলাইনার আর তুলোর সাহায্যে বন্ধ টয়লেট থেকে উদ্ধার পেলেন মহিলা

একেই বলে আশ্চর্য রক্ষা। ৭ ঘণ্টা ধরে একটি আবদ্ধ টয়লেটে আটকে পড়েন তিনি। তারপর নিজের বুদ্ধিতেই সেই টয়লেট থেকে বেঁচে ফেরেন।

মধ্যযুগে তৈরি একটি মোটা দেওয়ালের স্তম্ভ। তারমধ্যেই রয়েছে থাকার জায়গা। রয়েছে বাথরুম। সে বাথরুমে কোনও জানালা নেই। কেবল একটি দরজা। দরজাটি পুরু কাঠের তৈরি। এখানেই থাকেন ৩৩ বছরের এই যুবতী। তাঁর ওই বাথরুমে কল মিস্ত্রি কাজ করেছিলেন। তারপর তিনি সেই বাথরুমে ঢোকেন।

টয়লেট থেকে বার হওয়ার সময় হয় বিপত্তি। তিনি দেখেন তাঁর বন্ধ করা দরজা আর খুলছে না। না খোলার কারণ যে কল মিস্ত্রি কাজ করেছিলেন তিনি বাথরুমের দরজা আটকানোর ল্যাচটা ভেঙে ফেলেন।

তার ফলে টয়লেটের দরজা বন্ধ করার পর তা এমনভাবে আটকে যায় যে খোলা যায়নি। এদিকে দরজাও পুরু। তা ভাঙা যাচ্ছেনা। চিৎকার করলেও কেউ শুনতে পাবেন না। ব্রিটেনের কেমব্রিজ বিশ্ববিদ্যালয়ের কৃতী ক্রিস্টিনা ইলকো টয়লেট থেকে বার হওয়ার কোনও উপায় দেখতে পাচ্ছিলেন না।

অনেকরকম চেষ্টা করেও ক্রিস্টিনা ৭ ঘণ্টা কাটিয়ে ফেলেন ওই বন্ধ টয়লেটে। কিন্তু বার হওয়ার উপায় নেই। এই সময় তাঁর ব্যাগে থাকা একটা আইলাইনার এবং একটু তুলো দেখে তাঁর মাথায় বুদ্ধি খেলে।


ক্রিস্টিনা ওই ২টি সাজসজ্জার বস্তুকে কাজে লাগিয়ে দরজাটা খোলার চেষ্টা করতে থাকেন। আর তাতেই কাজ হয়। আচমকাই আইলাইনার ও তুলোর হাত ধরে খুলে যায় দরজা।

বাঁচার আশা প্রায় হারিয়ে ফেলা ওই যুবতী অবশেষে ৭ ঘণ্টা পর বেরিয়ে আসতে পারেন ওই টয়লেট থেকে। সংবাদমাধ্যম বিবিসি এই খবরটি সামনে আনে।

তারপর অনেক সংবাদমাধ্যমে খবরটি ছড়িয়ে পড়ে। ব্রিটিশ যুবতী ক্রিস্টিনা ইলকো নিজেও তাঁর এক্স হ্যান্ডলে তাঁর আশ্চর্য রক্ষার কথা জানান।

Show Full Article

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button