Entertainment

সুপারস্টারের দেহেও করোনা সংক্রমণ, রেহাই পেলেননা স্ত্রীও

হলিউড সুপারস্টার তিনি। পরপর ২ বছর ২টি সিনেমা ফিলাডেলফিয়া ও ফরেস্ট গাম্প-এর জন্য সেরা অভিনেতার অস্কার পান। তিনি সিনেমায় থাকা মানেই অভিনয়ের অন্য মাত্রা নজর কাড়া। সেই বিশ্ববিখ্যাত অভিনেতা টম হ্যাঙ্কস রেহাই পেলেননা করোনা সংক্রমণ থেকে। তিনি ও তাঁর স্ত্রী রিটা, ২ জনেই উপসর্গ থাকায় পরীক্ষা করান। আর ২ জনের শরীরেই করোনা ভাইরাসের অস্তিত্ব পাওয়া যায়।

বিখ্যাত গায়ক এলভিস প্রেসলি-র জীবন অবলম্বনে তৈরি হচ্ছে একটি সিনেমা। সেই সিনেমায় অভিনয় করছেন টম। সেই সিনেমার শ্যুটিংয়েই তিনি গিয়েছিলেন অস্ট্রেলিয়া। গোল্ড কোস্ট-এ শ্যুটিং চলছিল। সেসময়ই তাঁর ঠান্ডা লাগে। গা হাত পায়ে ব্যথা হতে থাকে। দ্রুত তিনি পরীক্ষা করান। আর পরীক্ষায় করোনা পজিটিভ হিসাবে পাওয়া যায়। তাঁর স্ত্রীরও মাঝে মাঝেই জ্বর আসছিল। তাই তিনিও পরীক্ষা করাতে একই ফল সামনে আসে।

টম হ্যাঙ্কস ও তাঁর স্ত্রী এরপরই নিজেদের আলাদা করে নেন সকলের থেকে। একটি ঘরে গৃহবন্দি রয়েছেন তাঁরা। স্বদিচ্ছায় গৃহবন্দি। সোশ্যাল সাইটে হ্যাঙ্কস জানিয়েছেন, সকলের কথা ভেবেই তাঁরা নিজেদের আলাদা করে নিয়েছেন। এটাই উচিত। এদিকে যে সিনেমার শ্যুটিং চলাকালীন টম হ্যাঙ্কস করোনা আক্রান্ত হন, সেই সিনেমার সঙ্গে যুক্ত বাকিদের ওই সেট থেকে দূরে থাকার পরামর্শ দেওয়া হয়েছে। — সংবাদ সংস্থার সাহায্য নিয়ে লেখা

Show More

Leave a Reply

Your email address will not be published.