State

ক্ষমতায় এলে কর্মসংস্থান প্রথম কাজ : রাহুল

গত বিধানসভা নির্বাচনে তৃণমূলকে ভোটে জিতিয়েছিল কংগ্রেস। বাংলার মানুষ মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে চাইছিলেন। তাই কংগ্রেস তাঁর পাশে থেকেছে। কিন্ত মমতা তাঁর প্রতিশ্রুতি রাখেননি। এদিন কুলটির নিয়ামতপুরে নির্বাচনী জনসভায় এমনই দাবি করলেন কংগ্রেস সহ-সভাপতি রাহুল গান্ধী। ক্ষমতায় আসার পর নরেন্দ্র মোদী ‌আর মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের মধ্যে কোনও পার্থক্য নেই বলেও দাবি করেন রাহুল। দুজনেই নিজের খেয়ালখুশিতে দল চালাচ্ছেন। গণতান্ত্রিক পরিকাঠামো নষ্ট করছেন। এদিন সারদা ইস্যু থেকে স্টিং কাণ্ড সবকিছু নিয়েই তৃণমূলকে আক্রমণ করেছেন রাহুল। তোপ দেগেছেন উড়ালপুল কাণ্ড নিয়েও। তাঁর দাবি তৃণমূলের কাছের লোকেরা সেতু তৈরির কাজ পেয়েছেন। এদিন কলকাতা থেকে বেলা ১টা নাগাদ রাহুল গান্ধীর হেলিকপ্টার জনসভার জন্য তৈরি স্টেজের পাশেই নামে। সঙ্গে ছিলেন প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি অধীর রঞ্জন চৌধুরী, সিপি জোশীর মত নেতারা। তৃণমূলকে সরাতে রাজ্য কংগ্রেসের নেতারা বাম-কংগ্রেস জোট চেয়েছিলেন বলেই তিনি এই জোটে সম্মতি দেন বলেও এদিন দাবি করেন রাহুল। এই জোট ক্ষমতায় এলে তাঁর প্রথম কাজ হবে রাজ্যের বেকার ‌যুবকদের কর্মসংস্থান। সঙ্গে থাকবে শিল্পায়ন। এদিন বামেদের পক্ষে মঞ্চে উপস্থিত ছিলেন সিপিএম নেতা বংশগোপাল চৌধুরী।

Show More

Leave a Reply

Your email address will not be published.