World

হাতে রয়েছে ৫ দিনের ডিজেল, তার কি হবে জানে না প্রতিবেশি দেশ

রাশিয়া ও ইউক্রেনের যুদ্ধের ফলে গোটা পৃথিবী জুড়ে জ্বালানিতে টান পড়তে চলেছে। এর ফল ভুগতে হবে সেই সাধারণ মানুষকেই। প্রতিবেশি দেশে তো মাথায় হাত পড়েছে ডিজেল নিয়ে।

ইউক্রেনে রাশিয়া হামলা চালানোর পরে জ্বালানিতে টান পড়তে শুরু করেছে। বিশ্ব বাজারে জ্বালানির দাম হুহু করে বাড়ছে। এর ফল ভুগছে বিভিন্ন দেশ। এদিকে যুদ্ধ কবে থামবে এ ব্যাপারে বর্তমানে নিশ্চিতভাবে কিছুই বলা যাচ্ছেনা।

জ্বালানিতে টান পড়লে নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিসপত্রের দামও হুহু করে বাড়ে। করোনা পরিস্থিতিতে একেই টান পড়েছে পকেটে, এরপর জ্বালানি সঙ্কটের ফলে নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিসের দাম বাড়লে পরিস্থিতি আরও দুর্বিষহ হবে, তা বলা বাহুল্য।

পাকিস্তানে বর্তমানে যে পরিমাণ ডিজেল মজুত রয়েছে তাতে আর মোটে ৫ দিন চলবে বলে জানা গিয়েছে। কেননা রাশিয়ার সঙ্গে ইউক্রেনের যুদ্ধের আগে ব্যারেল প্রতি ডিজেলের দাম ছিল ৯৪ ডলার। যুদ্ধ লাগার পরে ব্যারেল প্রতি ডিজেলের দাম বেড়ে বর্তমানে ১১২ ডলারে পৌঁছেছে।

ডিজেলের সঙ্কট দেখা দিতে পারে বলে ইতিমধ্যেই পাক সরকারকে সতর্ক করেছে সে দেশের রাষ্ট্রায়ত্ত তেল সংস্থা পাকিস্তান স্টেট ওয়েল অথবা পিএসও। কারণ রাশিয়া ও ইউক্রেনের যুদ্ধ শুরু হওয়ায় ব্যাপকভাবে বাধাপ্রাপ্ত হচ্ছে পাকিস্তানে ডিজেলের আমদানি।

কেবল প্রতিবেশি পাকিস্তানই নয়, ভারতও ডিজেল নিয়ে সমস্যায় পড়তে চলেছে। একইসঙ্গে জ্বালানি সঙ্কট দেখা দেওয়ার সম্ভাবনা মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র এবং ইউরোপ জুড়ে। তীব্র জ্বালানি সঙ্কটে পড়তে চলা বিভিন্ন দেশ এই সমস্যা মোকাবিলা কোন পথে করবে সেটা দেখাই এখন সময়ের অপেক্ষা।

পাকিস্তানের অয়েল কোম্পানিজ অ্যাডভাইজরি কাউন্সিলও ইতিমধ্যে ডিজেল সঙ্কট নিয়ে পাকিস্তান সরকারকে সতর্ক করেছে। অয়েল কোম্পানিজ অ্যাডভাইজরি কাউন্সিল পরিস্থিতি মোকাবিলায় হস্তক্ষেপ চেয়েছে পাকিস্তানের সেন্ট্রাল ব্যাঙ্কের গভর্নরের। — সংবাদ সংস্থার সাহায্য নিয়ে লেখা

Show More

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button