World

নাটকীয় মোড়, সরকার গড়তে ব্যর্থ বিরোধীরা, স্বপদে প্রধানমন্ত্রী

আস্থা ভোটে হারিয়ে হৈচৈ ফেলে দিয়েছিল বিরোধীরা। সরকার গিয়েছিল পড়ে। কিন্তু সময় পেয়েও বিরোধীরাও তাদের জোট সরকার গড়তে ব্যর্থ হল।

গত সোমবার আস্থা ভোটে হারতে হয়েছিল প্রধানমন্ত্রী খড়গ প্রসাদ শর্মা ওলিকে। সরকার পড়ে গিয়েছিল। ওইদিনই দেশের রাষ্ট্রপতি বিদ্যাদেবী ভাণ্ডারী বিরোধী দলগুলিকে ডেকে পাঠিয়েছিলেন তাদের জোট সরকার গঠনের জন্য। সময় চেয়েছিল বিরোধীরা।

বৃহস্পতিবার রাত ৯টা পর্যন্ত সময় ছিল তাদের হাতে। কিন্তু সেই সময়ের মধ্যে জোট গড়তে ব্যর্থ হয় ৩ বিরোধী দল। যার ফলে আস্থা ভোটে ওলিকে হারানো কার্যত জলে যায় তাদের। স্বপদেই বহাল রইলেন ওলি। বেঁচে গেল ওলি সরকারও।

নেপালে গত কয়েকদিন ধরে চলা রাজনৈতিক অচলাবস্থার অবসান হল এদিন। নেপালের প্রধান বিরোধী দল নেপালি কংগ্রেস। তারা চেয়েছিল তাদের দলের সভাপতি শের বাহাদুর দেউবাকে জোট সরকারে প্রধানমন্ত্রী করা হোক। যে প্রস্তাবে বেঁকে বসে জনতা সমাজবাদী পার্টি নেপাল।

বামপন্থীদের কোনওভাবে সমর্থন পেলেও সমাজবাদী পার্টির এই অসমর্থনকে কিছুতেই মেটানো সম্ভব হয়নি বলেই জানিয়েছে নেপালি কংগ্রেস।

এজন্য জোট গড়াও ব্যর্থ হয়। বেঁধে দেওয়া সময়ে সরকার গড়তে না পারায় ওলিকে স্বপদ ফিরিয়ে দেওয়া হয়। ফলে ওলিই থাকছেন নেপালের প্রধানমন্ত্রী।

নেপালের কমিউনিস্ট পার্টি ওলি সরকারের ওপর থেকে তাদের সমর্থন তুলে নেওয়ায় আস্থা ভোটের মুখে পড়তে হয় ওলি সরকারকে। সেখানে সোমবার তারা পরাজিতও হয়। তাদের দলেরই অনেক সদস্য বিরুদ্ধাচরণ করেন। — সংবাদ সংস্থার সাহায্য নিয়ে লেখা

Show More