Lifestyle

একজন নারীকেই বিয়ে করেন পরিবারের সব ভাই, এও এক প্রথা

এক পরিবারে যদি একাধিক ভাই থাকেন, তবে তাঁদের আলাদা আলাদা করে বিয়ে হয়না। একজন নারীকেই সকলে বিয়ে করেন। এ প্রথার পিছনে কিছু কারণও রয়েছে।

মহাভারতে নজর দিলে এমনটা পাণ্ডবদের পাঁচ ভাই ও দ্রৌপদীর ক্ষেত্রে দেখতে পাওয়া যায়। সেটা মহাভারতের কথা। এখনও এক পরিবারের সকল ভাইয়ের জন্য একজন স্ত্রীর প্রথা রয়েছে। নেপালে বসবাসকারী এক গোষ্ঠীর মধ্যে এই প্রথা প্রচলিত।

এখানে একটি পরিবারে একাধিক ভাই থাকলে তাঁদের আলাদা করে বিয়ে হয়না। একজন নারীকেই সব ভাই বিয়ে করেন। সব ভাইয়ের সঙ্গেই ওই নারীকে শারীরিক সম্পর্ক স্থাপন করতে হয় স্বামীস্ত্রীর মত।

যদিও এ নিয়ে ওই মহিলাদের তেমন আপত্তি নাকি থাকেনা। তাঁদের যুক্তি, যদি তাঁদের একজন স্বামীর মৃত্যুও হয় তাহলেও তিনি একা হয়ে যান না।

তাছাড়া যে বিষয়টিতে সবচেয়ে বেশি জোর দেওয়া হয় তা হল সন্তানপ্রসব। একই পরিবারে একাধিক ভাইয়ের আলাদা বিয়ে। তাঁদের একাধিক সন্তান মিলিয়ে সংসার বড় হয়ে যায়।

দরিদ্র এই পরিবারগুলির পক্ষে এতগুলি সন্তানকে বড় করে তোলা কঠিন হয়। সব ভাইয়ের একজন স্ত্রী থাকলে সন্তান সংখ্যা কম হয় পরিবারে। তাই এমন এক প্রথায় না করেননা অনেক মহিলা।

এমনও হয় যে একটি পরিবারের বড় ভাইয়ের সঙ্গে যখন একজন নারীর বিয়ে হয় তখন বাকি ভায়েরা ছোট বা কৈশোরে। তখন তাদের বড় করে তোলেন বড় ভাইয়ের স্ত্রী। তারপর তারা বড় হয়ে শারীরিক মিলনে সক্ষম বয়সে পৌঁছলে তাদের বিয়ে হয় ওই নারীর সঙ্গে।

যদিও এই প্রথা আগে যতটা ব্যাপক আকারে প্রচলিত ছিল, তা এখন আর নেই। ক্রমশ কমছে একাধিক পুরুষের একজন স্ত্রীর এই প্রথা। তবে এখনও বিলুপ্ত হয়নি।

Show More

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button