National

নর্মদার ধারে পাওয়া গেল ডাইনোসরের ডিম

এ দেশের অন্যতম নদী নর্মদা। তারই ধারে এক বিশাল অঞ্চল জুড়ে এক নতুন খোঁজ পেলেন জীবাশ্মবিদরা। পাওয়া গেল ডাইনোসরের ডিম।


ডাইনোসর মানে তো প্রাগৈতিহাসিক যুগের কথা। তারা যে এই ভারতেও পা রেখেছিল এবং ঘুরে বেড়াত তার খোঁজ পাওয়া গেল নর্মদা নদীর ধারে।


মধ্যপ্রদেশের ধার জেলায় নর্মদা উপত্যকার এক বিশাল অঞ্চল জুড়ে খননকার্য চালাচ্ছিল জীবাশ্মবিদদের একটি দল। যারা এই জীবাশ্মগুলির খোঁজ পায়। যা ইতিহাস বদলে দিতে পারে।


দলটির সদস্যরা ডাইনোসরের ডিমের খোঁজ পান ওই অঞ্চলে। ডাইনোসরের ২৫৬টি জীবাশ্ম ডিম উদ্ধার হয়েছে ওই অঞ্চল থেকে। তবে সব ডিম একই ধরনের ডাইনোসরের।

সবকটিই টাইটানোসরাসের ডিম বলেই জানিয়েছেন জীবাশ্মবিদেরা। প্রসঙ্গত ডাইনোসর পরিবারের অন্যতম বৃহৎ চেহারার ডাইনোসর হল এই টাইটানোসরাস। তবে এরা মাংসাশী নয়, ছিল তৃণভোজী।


শুধু ডিম বলেই নয়, ডাইনোসরের ৯২টি বাসারও খোঁজ মিলেছে ওই অঞ্চলে। মনে করা হচ্ছে ওই অঞ্চলে এক সময় টাইটানোসরাসের যথেষ্ট দাপট ছিল।


তবে তারা এখানেই থাকত কিনা তা এখনও পরিস্কার নয়। এমনও হতে পারে যে নর্মদা উপত্যকার ওই স্থান তাদের ডিম পাড়ার উপযুক্ত স্থান ছিল। তাই সেখানে তারা এসে ডিম পাড়ত। তারপর ডিম ফুটে শিশুর জন্ম হলে তাকে নিয়ে এখান থেকে চলে যেত। তবে ঠিক কি হত তা এখনও পরিস্কার নয়।


এমন নয় যে এর আগে ভারতে ডাইনোসরের অস্তিত্বের খোঁজ মেলেনি। কিন্তু নর্মদার ধারের এই স্থান যে ডাইনোসরদের ডিম পাড়ার জায়গা হয়ে গিয়েছিল তা জানা ছিলনা গবেষকদের। ফলে সেদিক থেকে এই আবিষ্কার অবশ্যই উল্লেখযোগ্য।


Show More

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *