National

পোশাক টেনে খুলে নিয়ে ১ ঘণ্টার ওপর রাস্তায় ঘোরানো হল মহিলাকে

এক মহিলাকে অর্ধ উন্মুক্ত অবস্থায় রাস্তায় ঘোরানো হল। তাও আবার ১ ঘণ্টারও ওপর ধরে চলল এই কাণ্ড। সবাই দেখলেন সবই। কিন্তু প্রতিবাদ হল না।

এক মহিলার বাড়িতে আচমকাই ঢুকে পড়ে ৩ ব্যক্তি। তারাও প্রতিবেশি। সকলে দেখেন ৩ জন বাড়িতে ঢুকে ওই মহিলাকে টেনে হিঁচড়ে বাড়ির বাইরে বার করে আনে। তারপর ৩ জনের মধ্যে একজন ওই মহিলার পরনের শাড়ি টেনে খুলতে থাকে।

সকলের সামনেই তাঁর শাড়ি টেনে খুলে নেওয়া হয়। খুলে নেওয়া শাড়ি হাতে গুটিয়ে সদর্পে ঘোরাতে থাকে ওই ব্যক্তি। মহিলার পরনে তখন কেবল সায়া আর ব্লাউজ। তিনি চেষ্টা করছেন লজ্জা নিবারণের।

সেই অবস্থায় ৩ ব্যক্তিই তাঁর শরীরে নানাভাবে হাত দিচ্ছে। তাঁকে মারধরও করছে। আর সেভাবেই মহিলাকে রাস্তা দিয়ে হাঁটাতে হাঁটাতে নিয়ে যাচ্ছে।

এভাবে প্রকাশ্য রাস্তায় সকলের সামনে পাড়ার এক মহিলাকে এমন চরম অপমানের শিকার হতে দেখেও কেউ এগিয়ে আসেননি বলে অভিযোগ। সকলে তাকিয়ে দেখেছেন মহিলার অবস্থা। কিন্তু কেউ প্রতিবাদ করেননি।


ঘটনার সূত্রপাত গত ৬ অক্টোবর। অভিযোগ, ওইদিন মদ্যপ অবস্থায় ওই মহিলার বাড়িতে ঢুকে তাঁর সঙ্গে অভব্যতা করে ওই ৩ ব্যক্তি। ঋষি প্যাটেল, শিবকুমার প্যাটেল ও মহেন্দ্র প্যাটেলের হাতে এই অপমান সহ্য না করে ওই মহিলা পুলিশে ফোন করে একথা জানান।

পুলিশ মহিলার অভিযোগের ভিত্তিতে ৩ জনকে গ্রেফতার করে। পরে অবশ্য তাদের জামিন হয়ে যায়। জামিন পেয়েই ৩ জন গত শনিবার ওই মহিলার বাড়িতে চড়াও হয়। তারপর তাঁকে বাড়ি থেকে টেনে বার করে এভাবে শাড়ি খুলে নিয়ে ঘণ্টাখানেক পুরো এলাকা ঘোরায়।

সবচেয়ে লজ্জার হল সব দেখেও চুপ করে সব মেনে নেন স্থানীয়রা। ১ জনও এগিয়ে আসেননি ওই মহিলার আব্রু রক্ষা করতে। পরে ওই ৩ অভিযুক্তকে ফের গ্রেফতার করে পুলিশ। ঘটনাটি ঘটেছে মধ্যপ্রদেশের সাতনা জেলার খেরা গ্রামে। — সংবাদ সংস্থার সাহায্য নিয়ে লেখা

Show Full Article

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button