National

একে অপরকে লক্ষ্য করে পাথর ছোঁড়ার উৎসব চলে আসছে ৫০০ বছর ধরে

এ দেশের বিভিন্ন প্রান্তে বহু প্রাচীন প্রথা উৎসবের রূপ নিয়েছে। যা আজও পালিত হয়। তেমনই এক উৎসব ২ গ্রামের মধ্যে পাথর ছোঁড়াছুঁড়ি।

ভারতের বিভিন্ন কোণায় ছড়িয়ে রয়েছে বৈচিত্র্যের ভাণ্ডার। এই দেশেই ৫০০ বছর ধরে চলে আসছে এমন এক উৎসব যাতে অংশ নিতেই সন্তানকে ছাড়তে চাইবেন না কোনও বাবা মা। যদিও ৫০০ বছর ধরে প্রজন্মের পর প্রজন্ম ধরে এই উৎসব পালিত হয়ে আসছে। সকলে অংশ নিচ্ছেন এই উৎসবে।

২ গ্রামের মানুষ সারা বছর অপেক্ষাও করে থাকেন এই পাথর ছোঁড়ার উৎসব পালনের জন্য। উৎসবের দিন ছুটি থাকে এলাকায়। পুলিশের কড়া নজরদারিতে, পুলিশের সুরক্ষা বলয়েই হয় এই পাথর ছোঁড়াছুঁড়ি।

নদীর ২ প্রান্তে ২ গ্রাম। ২ গ্রামের মানুষ নদীর পারে জমা হয়ে একে অপরের দিকে পাথর ছুঁড়তে থাকেন। এই প্রথা মানতে গিয়ে প্রতিবছর কিন্তু বহু মানুষ রক্তাক্ত হন। আহত হন।

এমনকি হিসাব বলছে প্রতিবছর এই উৎসবে অংশ নিয়ে পাথরের আঘাতে জনা ১২-র মৃত্যুও হয়। কিন্তু তার পরেও এই উৎসব নিয়ে এলাকায় উৎসাহের শেষ থাকেনা।


মধ্যপ্রদেশের ছিন্দওয়াড়া জেলার জাম নদীর ২ পাড়ে জড়ো হয়ে এই উৎসব পালন হয় ভাদ্র মাসে। যে উৎসবের স্থানীয় নাম গোটমার উৎসব। গত শনিবার হওয়া এই উৎসবে এবারও ২০০ জনের ওপর আহত হয়েছেন।

কথিত আছে একটি গ্রামের মেয়ে আর অন্য গ্রামের ছেলের মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক তৈরি হয়। যখন তাদের প্রেম ধরা পড়ে যায় তখন তাদের পাথর ছুড়ে মারে ২ গ্রামের মানুষ। তারপর থেকে এই প্রথা চলে আসছে।

পুলিশের তরফ থেকে বহুবার ২ গ্রামকে বুঝিয়ে এই উৎসব বন্ধ করার চেষ্টা হয়েছে। কিন্তু ফল হয়নি। ২ গ্রামের মানুষ রক্তাক্ত হলেও এই উৎসব পালনে মুখিয়ে থাকেন সারা বছর। — সংবাদ সংস্থার সাহায্য নিয়ে লেখা

Show Full Article

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button