National

মন্দির বিক্রি করে দেশে ফিরে যান প্রতিবেশি দেশের নাগরিক, ক্রেতার জবাবদিহি তলব

এ দেশে তাঁর সম্পত্তি বলে দাবি করে একটি মন্দির বিক্রি করে দেন প্রতিবেশি দেশের নাগরিক। একজন কিনেও নেন। বিষয়টি নিয়ে জবাবদিহি চাও হয়েছে ক্রেতার কাছে।

মন্দিরও বিক্রি হতে পারে এটা একটু অবিশ্বাস্য লাগলেও এমনটাই হয়েছে। ভারত ছেড়ে ১৯৬২ সালে পাকিস্তানে চলে যান আবিদ রহমান। তারপর ফের কিছুদিনের জন্য ভারতে আসেন ১৯৮২ সালে। ভারতে ফেলে যাওয়া তাঁর সম্পত্তির মধ্যে একটি মন্দির ছিল বলে দাবি করেন তিনি।

সেই মন্দিরের জমিতে একটি সাইকেল সারাইয়ের দোকান ছিল। যা চালাতেন মুখতার বাবা নামে একজন। আবিদ এই মুখতার বাবার কাছে মন্দিরটি বেচে দেন। কানপুরের রাম জানকী মন্দির বিক্রি হয়ে যায়। পরে সেই মন্দির চত্বরে একটি হোটেল তৈরি করেন মুখতার।

মন্দিরের মত সম্পত্তি ভারতে কত রয়েছে যা ভিন দেশের কারও তার একটি তালিকা তৈরি করে কাস্টডিয়ান অফ এনিমি প্রপার্টি। এই সরকারি সংস্থা এই মন্দির বিক্রির বিষয়টি জানতে পারেন।

কানপুরের সরকারি দস্তাবেজেও এই চত্বরকে মন্দির বলেই এখনও উল্লেখ করা হয়। বিষয়টি নিয়ে যাঁরা ওই মন্দির কিনেছেন তাঁদের জবাবদিহি করতে বলা হয়েছে। ২ সপ্তাহের মধ্যে জবাবদিহি চাওয়া হয়েছে। তারপর তা হাতে পেলে পরবর্তী পদক্ষেপ গৃহীত হবে।

বিষয়টি গত বছর সামনে আসে যখন শত্রু সম্পত্তি সংরক্ষণ সংঘর্ষ সমিতি এই মন্দিরটি নিয়ে একটি অভিযোগ দায়ের করে। অভিযোগক্রমে বিষয়টি নিয়ে তখনকার জেলাশাসক যুগ্ম ম্যাজিস্ট্রেটকে তদন্তভার দেন। সেই তদন্তের রিপোর্টও কাস্টডিয়ান অফ এনিমি প্রপার্টি-র কাছে পাঠিয়ে দেওয়া হয়েছে। — সংবাদ সংস্থার সাহায্য নিয়ে লেখা

Show More

Leave a Reply

Your email address will not be published.