National

চিকিৎসকের নির্দেশে রাস্তার ওপর ফেলে মার মহিলাকে

এমন এক কাণ্ড প্রকাশ্য রাস্তার ওপর ঘটে গেল। কয়েকজন উন্মত্ত যুবক এক মহিলাকে কার্যত রাস্তায় ফেলে মারল। রাস্তায় অনেকেই দেখলেন এমনটা ঘটছে।

ঘটনার সূত্রপাত একটা গাড়ি রাখাকে কেন্দ্র করে। এক মহিলা হাতে টানা ঠেলায় আলু ও পেঁয়াজ বিক্রি করেন। তাঁর সেই ঠেলা রাস্তার ধারে দাঁড় করানো ছিল। বিক্রিতে ব্যস্ত ছিলেন তিনি। এমন সময় তাঁর ঠেলার সামনেই এসে দাঁড়ায় এক চিকিৎসকের গাড়ি।

গাড়ি সামনে রাখা থাকলে তাঁর বিক্রি হবে না। তাই গাড়িটি সরাতে বলেন মহিলা। চিকিৎসকও গাড়ি সরাতে রাজি হননি। এই নিয়ে শুরু হয় বচসা। এই সময় চিকিৎসক অগ্নিশর্মা হয়ে তাঁর ক্লিনিকের লোকজনকে ডেকে পাঠান।

ওই যুবকরা দ্রুত সেখানে হাজির হয়। তারপর ওই মহিলার ওপর চড়াও হয়। কয়েক জন যুবক মিলে মহিলাকে রাস্তায় মারধর করতে থাকে। তাঁর হাতে টানা ঠেলা উল্টে দেয় রাস্তার ওপর।

আলু, পেঁয়াজ রাজপথে গড়াগড়ি দিতে থাকে। ওই মহিলা আর্তনাদ করতে থাকেন। মারধর করা হয় দ্বারকা বাঈ নামে ওই মহিলা ও তাঁর ছেলে রাজুকে। নির্মমভাবে চলে মারধর।

প্রাথমিকভাবে পথ চলতি মানুষজন বিষয়টি দেখছিলেন। এরপর এগিয়ে আসেন কয়েকজন যুবক। তাঁরাই ওই মহিলা ও তাঁর ছেলেকে মুক্ত করেন। ততক্ষণে ওই মহিলা রাস্তায় পড়ে গিয়েছেন।

পুরো ঘটনায় চিকিৎসকের দিকেই মূলত আঙুল উঠেছে। ঘটনাটি ঘটেছে মধ্যপ্রদেশের ইন্দোরে। এই ভিডিও ছড়িয়ে পড়তেই নেটিজেনরাও এক মহিলার ওপর এমন আচরণের নিন্দা করেন।

প্রসঙ্গত গাড়িতে আঁচড় লেগে যাওয়ায় এক পাকা পেঁপে বিক্রেতার অধিকাংশ পেঁপে রাস্তায় ছুঁড়ে ফেলে দিয়েছিলেন এক অধ্যাপিকা। ভোপালের সেই ঘটনার ভিডিও কদিন আগেই ভাইরাল হয়।

Show More

Leave a Reply

Your email address will not be published.