National

প্রেশারকুকারে আটকে গেল শিশুর মাথা, তারপর আশ্চর্য রক্ষা

এক ছোট্ট শিশুর মাথা প্রেশারকুকারে ঢুকে যায়। বাড়ির লোকজন অনেক চেষ্টা করেন যাতে তাকে উদ্ধার করা যায়। কিন্তু সম্ভব হয়নি।

মাত্র দেড় বছর বয়স। সবে অল্প অল্প হাঁটতে শিখেছে। আশপাশে যাই দেখছে তাই নেড়ে ঘেঁটে দেখছে সেটা কি? বোঝার চেষ্টা করছে। সবই তার কাছে খেলনা।

তেমনভাবেই সকলের অলক্ষ্যে একটি প্রেশারকুকারকেও খেলনাই ভেবেছিল সে। মাথাটা প্রেশারকুকারের ছোট গোল ফাঁকের মধ্যে গলিয়ে হয়তো দেখার চেষ্টা করছিল তার ভিতরে কি আছে! কিন্তু মাথা যেভাবে গলেছিল ভিতরে সেভাবে আর বার হল না।

এদিকে শিশুটি যে মাথা গলিয়ে ফেলেছে প্রেশারকুকারে তা বাড়ির লোকজন বুঝতে পারেন তার কান্না শুনে। সকলেই চেষ্টা শুরু করেন যাতে প্রেশারকুকার থেকে বার করে আনা যায় মাথা।

আবার খুব বেশি তাড়াহুড়ো টানাহেঁচড়াও করা যাচ্ছে না। তাতে হিতে বিপরীত হতে পারে। ক্ষতি হতে পারে শিশুটির।

অনেক চেষ্টার পরও বিফল হয়ে বাড়ির লোকজন ওই অবস্থাতেই তাকে নিয়ে হাসপাতালে ছোটেন। সেখানে চিকিৎসকেরা পরিস্থিতি দেখে হতবাক।

এমনি করে প্রেশারকুকার থেকে মাথা আর বার করা যে যাবে না তা তাঁরা বুঝে যান। তাহলে উপায়! উপায় একটাই। প্রেশারকুকার কেটে বার করে আনতে হবে মাথা। কিন্তু সে কাজেও ঝুঁকি রয়েছে।

কাটতে গেলে মাথায় আঘাত লাগতে পারে। বড় বিপদ হতে পারে। অনেক ভেবে একটি বিশেষ ধরণের গ্রাইন্ডিং মেশিন আনান তাঁরা।

তারপর টানা ২ ঘণ্টার চেষ্টায় অতি সন্তর্পণে চলে প্রেশারকুকার কাটার কাজ। তাও মাথা বাঁচিয়ে। তাতে সফলও হন চিকিৎসকেরা। বার করে আনা হয় শিশুটিকে।

অক্ষত অবস্থায় রক্ষা পায় শিশুটি। শিশুকে ফিরে পাওয়ার জন্য চিকিৎসকদের ধন্যবাদ জানিয়েছে পরিবার। ঘটনাটি ঘটেছে আগ্রা শহরে। — সংবাদ সংস্থার সাহায্য নিয়ে লেখা

Show More

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button