National

দেশে দৈনিক সংক্রমণ ও মৃত্যু কমল

কমছে তবে তা নেহাতই সামান্য। বলা ভাল দেশে দৈনিক সংক্রমণ প্রায় একই জায়গায় ঘুরে বেড়াচ্ছে। অন্যদিকে হাজারের ওপর যাওয়া দৈনিক মৃত্যু ফের হাজারের নিচে নেমেছে।

দেশে করোনা সংক্রমণের ভয়ংকর রূপ কমলেও দ্বিতীয় ঢেউ যে এখনও বিদায় নেয়নি তা দৈনিক পরিসংখ্যান বারবার চোখে আঙুল দিয়ে দেখিয়ে দিচ্ছে। দৈনিক সংক্রমণ এখন সামান্য সামান্য করে কমছে। আবার মাঝে মাঝেই বেড়েও যাচ্ছে।

গত একদিনে অবশ্য দৈনিক সংক্রমণ কমেছে। তবে তা অতি সামান্য। দেশে এদিন করোনা সংক্রমিতের সংখ্যা হয়েছে ৪১ হাজার ৫০৬ জন। দেশে মোট সংক্রমিতের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৩ কোটি ৮ লক্ষ ৩৭ হাজার ২২২ জন।

এদিন ১৮ লক্ষ ৪৩ হাজার ৫০০টি নমুনা পরীক্ষা হয়েছে দেশে। দেশে এদিন নমুনা পরীক্ষা গত দিনের থেকে ১ লক্ষের ওপর কমেছে।

এদিন দেশে দৈনিক মৃতের সংখ্যা গত দিনের তুলনায় অনেকটা কমেছে। ১ হাজার পার করা মৃত্যু ফের নেমে এসেছে হাজারের নিচে। মৃত্যু হয়েছে ৮৯৫ জনের। দেশে মোট মৃতের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৪ লক্ষ ৮ হাজার ৪০ জন। দেশে মৃত্যুর হার দাঁড়িয়েছে ১.৩২ শতাংশ।


এদিন দেশে দৈনিক মৃত্যু সংখ্যার কমার কারণও সেই পুরনো। মহারাষ্ট্রে মৃত্যু বাড়া মানেই দেশে মোট মৃত্যুর সংখ্যা বেড়ে যাওয়া, আবার কমা মানে কমে যাওয়া।

গত একদিনে মহারাষ্ট্রে মৃত্যু হয়েছে ৪৯৪ জনের। কেরালায় মৃত্যু হয়েছে ১০৯ জনের। মহারাষ্ট্র ও কেরালা ছাড়া দেশে এমন কোনও রাজ্য নেই যেখানে ৩ অঙ্কে রয়েছে একদিনে মৃতের সংখ্যা। বাকি রাজ্যের দৈনিক মৃত্যু ২ বা ১ অঙ্কে দাঁড়িয়ে আছে।

একদিন বাড়ার পর দেশে এদিন ফের অ্যাকটিভ রোগীর সংখ্যা কমেছে। এদিন কমেছে ৯১৫ জন। দেশে এখন অ্যাকটিভ রোগীর সংখ্যা কমে দাঁড়িয়েছে ৪ লক্ষ ৫৪ হাজার ১১৮ জন। দেশে এদিন অ্যাকটিভ রোগীর হার কমে দাঁড়িয়েছে ১.৪৭ শতাংশে।

এদিকে দেশে সংক্রমিতের চেয়ে এদিন সুস্থ হয়ে হয়ে ওঠা মানুষের সংখ্যা বেশি হয়েছে। গত একদিনে সুস্থ হয়ে উঠেছেন ৪১ হাজার ৫২৬ জন।

দেশে মোট সুস্থ হয়ে ওঠা মানুষের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ২ কোটি ৯৯ লক্ষ ৭৫ হাজার ৬৪ জন। সুস্থতার হার এদিন গত দিনের সঙ্গে একই জায়গায় দাঁড়িয়ে আছে। রয়েছে ৯৭.২০ শতাংশে। — ভারত সরকারের দৈনিক আপডেটের সাহায্য নিয়ে লেখা

Show Full Article
Back to top button