National

বিয়ে করতে এসে কনেকে ধরে টানাটানি বরের, বদলে গেল পরিবেশ

বিয়ে করতে এসে কনেকে ধরে টানাটানি শুরু করল করল বর। তাতে মদত দেয় বরের বন্ধুরা। এমন ঘটনার পর মুহুর্তে বদলে যায় গোটা পরিবেশ।

বিয়ের আয়োজনে কোনও খামতি ছিলনা। পণ বেআইনি হলেও বরের বাড়ির দাবি মেনে কনের পরিবার টাকা ওই উপহার সামগ্রি সবই চাহিদামত মিটিয়ে দিয়েছিল।

বিয়েবাড়ি আনন্দে মেতে উঠেছিল। গত শনিবার রাতে সঠিক সময়ে বরকে নিয়ে বরযাত্রীরাও পৌঁছে যান কনের বাড়িতে। বরকে বসানো হয় প্রথা মেনে। বিয়ে শুরু হতে আর কিছুক্ষণ বাকি।

ঠিক তার আগেই বর হঠাৎ উঠে পড়ে আসন ছেড়ে। সঙ্গে তার বন্ধুরাও। শুরু হয় নাচ। বরও নাচছে, তার বন্ধুরাও নাচছে।

সকলেই মদ্যপান করে থাকায় তাদের পাও টলছে। তবু নাচ থামছে না। এরমধ্যেই আচমকা কনে যেখানে বসে ছিলেন সেখানে হাজির হয় বর ও তার বন্ধুরা।


বর এগিয়ে যায় কনের দিকে। তারপর তাঁকে জোর করতে থাকে নাচার জন্য। বিয়ে শুরুর আগে বরের এই কাণ্ড দেখে হকচকিয়ে যান কনের বাড়ির লোকজন।

এদিকে বরের দাবি বাড়তেই থাকে। কনে রাজি না হওয়ায় তাঁকে এবার শুরু হয় জোর করা। হাত ধরে জোর করে তাঁকে নাচতে বাধ্য করার চেষ্টা করে বর। ইন্ধন দেয় তার বন্ধুরা।

এই পর্যন্ত সহ্য করার পর এবার সরাসরি প্রতিবাদ করে ওঠেন কনে। তারপর সাফ জানিয়ে দেন তিনি এমন মদ্যপ ব্যক্তিকে বিয়ে করবেননা।

কনের বাড়িও কনের এই সিদ্ধান্তকে সমর্থন করে। বর ও বরযাত্রী প্রায় সকলেই তখন মদ্যপ অবস্থায় ছিল। তাদের ওই অবস্থায় আটকও করে তারা।

এদিকে বরের বাড়ি থেকে দ্রুত পুলিশে ফোন করা হয়। পুলিশ এসে সব শোনার পর সাফ জানিয়ে দেয় এই মামলা মিটবে তখনই যদি বরের পরিবার কনের পরিবারের কাছ থেকে নেওয়া সব টাকা ও উপহার ফেরত দেয়। ঘটনাটি ঘটেছে উত্তরপ্রদেশের প্রতাপগড় জেলায়। — সংবাদ সংস্থার সাহায্য নিয়ে লেখা

Show Full Article
Back to top button