National

দেশে সংক্রমণ কমল, বাড়ল মৃত্যু, অ্যাকটিভ রোগী কমল লক্ষাধিক

ভারতে এখন কোনওদিন সংক্রমণ কমছে তো বাড়ছে মৃত্যু। আর মৃত্যু কমছে তো বাড়ছে সংক্রমণ। এদিনও তেমনটাই ঘটল। অন্যদিকে একদিনে অ্যাকটিভ রোগী কমেছে লক্ষাধিক।

দেশে করোনা সংক্রমণ এক ভয়ংকর রূপ ধারণ করেছে। তবে বৈজ্ঞানিকরা বলছেন ভারত দ্বিতীয় করোনার ঢেউয়ের চূড়া স্পর্শ করে ফেলেছে। এবার আস্তে আস্তে নামবে সংক্রমণ। পরপর ২ দিন বাড়ার পর এদিন ফের কমল সংক্রমণ।

এদিন দেশে করোনা সংক্রমিতের সংখ্যা হয়েছে ২ লক্ষ ৫৯ হাজার ৫৫১ জন। এদিন দেশে মোট সংক্রমিতের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ২ কোটি ৬০ লক্ষ ৩১ হাজার ৯৯১ জন।

এদিন ২০ লক্ষ ৬১ হাজার ৬৮৩টি নমুনা পরীক্ষা হয়েছে দেশে। গত দিনের চেয়ে কিছুটা বেড়েছে নমুনা পরীক্ষা। দেশে এদিন রেকর্ড সংখ্যক নমুনা পরীক্ষা হয়েছে।

এদিকে দেশে গত একদিনে মৃত্যু ফের বেড়েছে। মহারাষ্ট্রে মৃতের সংখ্যা গত একদিনে বাড়তেই দেশের মোট দৈনিক মৃত্যুও বেড়েছে। দেশে এদিন মৃত্যু হয়েছে ৪ হাজার ২০৯ জনের। দেশে এখন মোট মৃতের সংখ্যা ২ লক্ষ ৯১ হাজার ৩৩১ জন। দেশে মৃত্যুর হার ১.১১ শতাংশ থেকে বেড়ে হয়েছে ১.১২ শতাংশ।


আগের দিন কমে এদিন মহারাষ্ট্রে ফের মৃত্যু অনেকটা বেড়ে হয়েছে ৯৮৪ জন। এছাড়া দিল্লিতে ২৩৩ জনের, ছত্তিসগড়ে ১১৩ জনের, উত্তরপ্রদেশে ২৩৬ জনের, কর্ণাটকে ৫৪৮ জনের, রাজস্থানে ১২৭ জনের, পঞ্জাবে ১৯১ জনের, তামিলনাড়ুতে ৩৯৭ জনের, অন্ধ্রপ্রদেশে ১১৪ জন, হরিয়ানায় ১২৯ জনের ও পশ্চিমবঙ্গে ১৬২ জনের মৃত্যু হয়েছে। মৃত্যুতে ২ অঙ্কে দাঁড়িয়ে দেশের অনেক রাজ্য।

দেশে এদিনও অ্যাকটিভ রোগীর সংখ্যা কমেছে। দেশে অ্যাকটিভ রোগী এদিন কমেছে ১ লক্ষ ১ হাজার ৯৫৩ জন। দেশে এখন অ্যাকটিভ রোগীর সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৩০ লক্ষ ২৭ হাজার ৯২৫ জন। দেশে এখন কমে ১১.৬৩ শতাংশ হয়েছে অ্যাকটিভ রোগীর হার।

এদিকে দেশে সংক্রমিতের চেয়ে এদিন সুস্থ হয়ে হয়ে ওঠা মানুষের সংখ্যা অনেক বেশি। গত একদিনে সুস্থ হয়ে উঠেছেন ৩ লক্ষ ৫৭ হাজার ২৯৫ জন। সুস্থতার হার বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৮৭.২৫ শতাংশ। — সংবাদ সংস্থার সাহায্য নিয়ে লেখা

Show Full Article
Back to top button