National

গঙ্গার ঘাটে ভাসছে প্রচুর পচাগলা দেহ, তদন্তে প্রশাসন

গঙ্গার ঘাটে ইতিউতি ভাসছে পচাগলা দেহ। যা কার্যত স্থানীয় মানুষের মধ্যে আতঙ্কের জন্ম দেয়। গোটা ঘটনার তদন্তে নেমেছে প্রশাসন।

গঙ্গার ঘাটের কাছে ইতিউতি ভাসছে মানুষের দেহ। কোনওটা কাপড় জড়ানো। কোনওটা কিছুটা খোলা। দেহ দূর থেকে দেখলেই বোঝা যায় তাতে পচন ধরেছে।

যে দেহ গঙ্গার পাড়ে ঠেকেছে সেগুলিতে দাঁত বসিয়েছে কুকুর। খুবলে খেয়েছে শকুনও। এমনই এক ভয়ংকর দৃশ্য দেখে আঁতকে উঠলেন বিহার ও উত্তরপ্রদেশের সীমান্তবর্তী এলাকা বক্সারের মহাদেব ঘাট এলাকার বাসিন্দারা।

এই ঘাটের কাছেই প্রায় ৪৩টি এমন দেহ ভাসতে দেখেন তাঁরা। সংখ্যাটা আরও বেশিও হতে পারে বলে মনে করছেন স্থানীয়রা।

ঘটনার খবর পেয়ে প্রশাসন পদক্ষেপ করে। স্থানীয় চৌসার বিডিও পুরো পরিস্থিতি দেখার পর তাঁর প্রাথমিক অনুমান দেহগুলি ফেলা হয়েছে উত্তরপ্রদেশের কোনও একটি বা একাধিক জায়গায়।


যেগুলি গঙ্গার জলে ভাসতে ভাসতে মহাদেব ঘাটে এসে ঠেকেছে। দেহগুলি কমপক্ষে ৫-৬ দিনের পুরনো বলে জানানো হয়েছে। পচন ধরেছে দেহগুলিতে।

স্থানীয়দের দাবি এসব দেহ করোনায় মৃতদের। সেগুলির সঠিক পদ্ধতিতে সৎকার না করে সেগুলিকে গঙ্গার জলে ভাসিয়ে দেওয়া হয়েছে।

এমনকি মহাদেব ঘাটের কাছের এক বাসিন্দার দাবি সেখানেও এমন ঘটনা ঘটছে। গঙ্গার জলে ফেলে দেওয়া হচ্ছে করোনায় মৃতের দেহ। প্রতিবাদ করলে পাল্টা শুনতে হচ্ছে সৎকারের পয়সা কে দেবে?

মহাদেব ঘাটে যে দেহগুলি ভেসে এসেছে সেগুলির সৎকারের ব্যবস্থা করেছে প্রশাসন। পুরো ঘটনার তদন্ত করা হচ্ছে। এদিকে করোনায় মৃতদের দেহ যমুনার জলেও ফেলার অভিযোগ উঠেছে। — সংবাদ সংস্থার সাহায্য নিয়ে লেখা

Show Full Article
Back to top button