National

দেশে একদিনে দেড় লক্ষের ওপর সংক্রমণ

২৪ ঘণ্টায় ১ লক্ষ ৫০ হাজারের ওপর সংক্রমিতের খোঁজ মিলল ভারতে। যা এখনও পর্যন্ত রেকর্ড। এখন অবশ্য প্রতিদিনই আগের দিনের সংক্রমণের রেকর্ড ভেঙে যাচ্ছে।

এপ্রিলের শুরুতেই দেশ করোনা সংক্রমণে রেকর্ড উচ্চতা ছুঁয়ে ১ লক্ষ পার করে। তারপর থেকে তা বেড়েই চলেছে। এপ্রিলের দশম দিনে এসে ফের রেকর্ড গড়ল ভারত। এদিন প্রথমবারের জন্য একদিনে ১ লক্ষ ৫০ হাজার পার করল সংক্রমণ।

করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ের দাপটে দেশে শনিবার ১ লক্ষ ৫২ হাজার ৮৭৯ জন সংক্রমিতের খোঁজ মিলল। মহারাষ্ট্র, পঞ্জাব, ছত্তিসগড়, গুজরাট, কেরালা, তামিলনাড়ু তো বটেই এখন কর্ণাটক, উত্তরপ্রদেশ, দিল্লি, পশ্চিমবঙ্গ সহ অন্য রাজ্যেও বাড়ছে সংক্রমণ। সংক্রমণ বৃদ্ধি পেতে থাকায় দেশে ক্রমশ অ্যাকটিভ রোগীর সংখ্যা বাড়ছে।

ফেব্রুয়ারিতেও যেখানে অ্যাকটিভ রোগীর সংখ্যা কমতে কমতে ১ লক্ষের নিচে যাওয়ার উপক্রম হয়েছিল, সেখানে বাড়তে বাড়তে তা এদিন ১১ লক্ষ পার করল। এদিন নমুনা পরীক্ষা গত দিনের তুলনায় বেড়েছে। ১৪ লক্ষ ১২ হাজার ২৪৭টি নমুনা পরীক্ষা হয়েছে এদিন।

রোগীর সংখ্যা বৃদ্ধির হাত ধরে দেশে মোট সংক্রমিতের সংখ্যা এদিন ১ কোটি ৩৩ লক্ষ ৫৮ হাজার ৮০৫ জনে দাঁড়িয়েছে। এখন একদিনে ১ লক্ষ পার করছে সংক্রমিতের মোট সংখ্যা। সুস্থ হয়ে ওঠা মানুষের সংখ্যা এদিনও সংক্রমিতের চেয়ে অনেক কম হয়েছে। ফলে অ্যাকটিভ রোগীর সংখ্যা অনেক বেড়েছে।

এদিন দেশে অ্যাকটিভ রোগীর সংখ্যা ১১ লক্ষের ওপর পৌঁছে গেছে। দাঁড়িয়েছে ১১ লক্ষ ৮ হাজার ৮৭ জনে। একদিনে বেড়েছে ৬১ হাজার ৪৫৬ জন। এদিকে করোনা অ্যাকটিভ রোগীর সংখ্যা বাড়ায় অ্যাকটিভ রোগীর শতাংশের হারও ফের বেড়েছে। বেড়ে হয়েছে ৮.২৯ শতাংশ।

এপ্রিল শুরুই হয়েছে সাড়ে ৪০০ পার করা দৈনিক করোনায় মৃত্যু দিয়ে। এদিন তা ৮০০ পার করল। গত একদিনে মৃত্যু হয়েছে ৮৩৯ জনের। এদিনের মৃতের সংখ্যার হাত ধরে দেশে মোট করোনায় মৃতের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ১ লক্ষ ৬৯ হাজার ২৭৫ জন। মৃত্যুর হার ১.২৮ শতাংশ থেকে কমে হয়েছে ১.২৭ শতাংশ।

গত একদিনে দেশে রাজ্য ভিত্তিক যে মৃতের সংখ্যার খতিয়ান সামনে এসেছে তাতে একদিনে করোনায় মৃত্যুর নিরিখে পশ্চিমবঙ্গ কিছুটা পিছিয়েই রয়েছে। রাজ্যে গত দিন ১২ জনের মৃত্যু হয়েছে।

গত একদিনে মহারাষ্ট্রে মৃত্যু হয়েছে ৩০৯ জনের। ছত্তিসগড়ে ১২৩ জন প্রাণ হারিয়েছেন করোনায়। পঞ্জাবে ৫৮ জনের মৃত্যু হয়েছে। কর্ণাটকে ৩৬ জনের মৃত্যু হয়েছে। গুজরাটে মৃত্যু হয়েছে ৪৯ জনের। উত্তরপ্রদেশে মৃত্যু হয়েছে ৪৬ জনের। দিল্লিতে মৃত্যু হয়েছে ৩৯ জনের।

করোনা সংক্রমণ ফের বাড়তে শুরু করায় দৈনিক সুস্থ হয়ে ওঠা মানুষের সংখ্যা দৈনিক সংক্রমিতের তুলনায় অনেকটাই পিছিয়ে পড়েছে। গত ২৪ ঘণ্টায় করোনাকে হারিয়ে সুস্থ হয়ে উঠেছেন ৯০ হাজার ৫৮৪ জন।

এর হাত ধরে দেশে করোনাকে হারিয়ে সুস্থ হয়ে ওঠা মানুষের মোট সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ১ কোটি ২০ লক্ষ ৮১ হাজার ৪৪৩ জন। সুস্থতার হার নেমে দাঁড়িয়েছে ৯০.৪৪ শতাংশে। — সংবাদ সংস্থার সাহায্য নিয়ে লেখা

Show More

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button