National

মায়ের গলায় ছুরি চেপে ধরে বিধানসভার সামনে হাজির যুবক

আঁতকে ওঠার মত কাণ্ড ঘটে গেল। মায়ের গলায় ছুরি চেপে ধরে বিধানসভার সামনে হাজির হল এক যুবক।

ভুবনেশ্বর : মা ও ছেলে হেঁটেই আসছিল। রাস্তা দিয়ে অন্য লোকজনের মতই যাচ্ছিল তারা। আচমকাই বিধানসভার পূর্ব দিকের গেটের সামনে এসে দাঁড়িয়ে পড়ে তারা।

ওই যুবক তার মায়ের ঘাড়ের কাছে চেপে ধরে। তারপর ব্যাগ থেকে বার করে একটা ধারাল ছুরি। সেই ছুরি নিমেষে মায়ের গলার কাছে চেপে ধরে সে।


পড়ুন আকর্ষণীয় খবর, ডাউনলোড নীলকণ্ঠ.in অ্যাপ

পুরো ব্যাপারটি এত তাড়াতাড়ি ঘটে যায় যে সেখানে উপস্থিত পুলিশকর্মীরা হতভম্ব হয়ে যান। তবে তা সামান্য সময়ের জন্যই। দ্রুত তাঁরা ছুটে আসেন মহিলাকে বাঁচাতে।

ঘটনাটি ঘটেছে ভুবনেশ্বরে ওড়িশা বিধানসভার সামনের সচিবালয় মার্গ-এ। বিধানসভায় এখন চলছে বাদল অধিবেশন। সে সময় এমন এক ঘটনায় পুলিশকর্মীরা সতর্ক হয়ে পড়েন।

ওই যুবকের হাতে ছিল একটি লিফলেট। যাতে তার দাবি ছিল বেশ কয়েক জন বিজেডি নেতা দুর্নীতিতে ইন্ধন জোগাচ্ছেন। তাঁদের নাম ছিল সেই লিফলেটে। যুবক এই দাবি করে তার মাকে ওড়িশা বিধানসভার সামনেই হত্যা করার হুমকি দিতে থাকে।

পুলিশ অবশ্য দ্রুত ব্যবস্থা নেয়। যুবককে কিছু করার আগেই ধরে ফেলেন কর্তব্যরত পুলিশকর্মীরা। ওই যুবকের মা জানিয়েছেন তিনি অসুস্থ। তাই হাসপাতালে নিয়ে যাবে বলে তাঁকে নিয়ে বেরিয়েছিল তাঁর ছেলে। তারপর তাঁকে হাসপাতালে না নিয়ে গিয়ে বিধানসভার সামনে নিয়ে আসে।

পুলিশের প্রাথমিক অনুমান ওই যুবক মানসিক ভারসাম্যহীন। তাই তাকে মানসিক রোগের চিকিৎসার জন্য হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

জিতেন্দ্র পাল নামে ওই যুবক ও তার মা নয়াগড় জেলার বাসিন্দা। ভুবনেশ্বরে এসেছিলেন মহিলার চিকিৎসার জন্য। তারপর এই কাণ্ড ঘটে গেল। তবে পুরো ঘটনার পিছনে অন্য কোনও কারণ রয়েছে কিনা তাও খতিয়ে দেখছে পুলিশ।

একেবারে ওড়িশা বিধানসভার সামনে এমন ঘটনা ঘটে যাওয়ায় সুরক্ষা নিয়েও প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে। নিরাপত্তা বলয় সত্যিই নিশ্ছিদ্র কিনা তাও খতিয়ে দেখা হচ্ছে। নাহলে এমন কাণ্ড একদম বিধানসভার দরজায় ঘটল কি করে তা নিয়েও প্রশ্ন উঠছে। — সংবাদ সংস্থার সাহায্য নিয়ে লেখা

Show More

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *