Saturday , December 14 2019
Varanasi
ফাইল : বারাণসী, নিজস্ব চিত্র

বারাণসীর সব মন্দিরের চৌহদ্দিতে বন্ধ মদ ও আমিষ খাবার বিক্রি

বারাণসীর কাশী বিশ্বনাথ মন্দির, মথুরায় শ্রীকৃষ্ণের জন্মভূমি ও প্রয়াগরাজের সঙ্গমের ১ কিলোমিটার ব্যসের মধ্যে কোথাও মদ বা কোনও আমিষ খাবারের দোকান থাকবে না। এই নির্দেশ আগেই দিয়েছিলেন উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ। এছাড়াও তিনি বারাণসী, বৃন্দাবন, অযোধ্যা, চিত্রকূট, দেওবন্দ, দেওয়া শরিফ ও মিশরিখ-নৈমিষারণ্যের মন্দিরগুলির কাছে মদ ও আমিষ বিক্রি বন্ধ করার কথা জানিয়েছিলেন। সেইমত বারাণসী শহরের সব মন্দিরের ২৫০ মিটার ব্যসের মধ্যে বন্ধ হয়ে গেল মদ ও আমিষ খাবারের সব দোকান।

শুধু মন্দির বলেই নয়, এখানে যাবতীয় হেরিটেজ সাইটেরও ২৫০ মিটার ব্যাসের মধ্যে মদ ও আমিষ খাবার বিক্রি বন্ধ করছে সরকার। বারাণসী পৌরসভার বৈঠকের পর এ বিষয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়েছে। ফলে বারাণসী শহর জুড়ে অধিকাংশ মদের দোকানই বন্ধ হচ্ছে। বন্ধ হচ্ছে আমিষ খাবারের দোকানও। পর্যটকে পূর্ণ থাকে বারাণসী। তাঁরা আমিষ খাবার চাইলে বারাণসীতে হয়তো আগামী দিনে দূরবীন নিয়ে খুঁজতে হবে।

প্রসঙ্গত শুধু বারাণসীতেই কাশী বিশ্বনাথ মন্দির সহ প্রায় ২ হাজার মন্দির রয়েছে। মন্দিরের শহর বলেই পরিচিত বারাণসী। ভারতের ইতিহাস সহ আধ্যাত্ম্য ইতিহাসের সঙ্গে বারাণসী ওতপ্রতভাবে জড়িত। সুপ্রাচীন শহর হিসাবেও এর পরিচিতি দেশের সীমা পার করে বিদেশে, বহু চর্চিতও। এই বারাণসী লোকসভা কেন্দ্র থেকেই ২০১৪ ও ২০১৯ লোকসভা নির্বাচনে জয়ী হয়েছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। বহু পুরনো সময়ে গড়ে ওঠার ফলে বারাণসী খুবই ঘিঞ্জি শহর। রাস্তা সরু। যাতায়াতের পথ খুবই সংকীর্ণ। বারাণসীর কাশী বিশ্বনাথ মন্দিরে যাঁরা আসতে পারছেন না, সে দূরে থাকার কারণই হোক বা শারীরিক কারণে হোক, তাঁদের জন্য অনলাইনে আরতি বুকিং শুরু হয়েছে ২০১৭ সাল থেকে। বুকিং করলে অনলাইনেই আরতি দেখতে পাবেন তাঁরা। তাছাড়া প্রসাদও ডাক মারফত তাঁদের কাছে পৌঁছে যাবে। তবে তার আগে অনলাইনে বুকিং করতে হবে। — সংবাদ সংস্থার সাহায্য নিয়ে লেখা

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *