National

উপমুখ্যমন্ত্রীর বাড়িতে আগুন ধরিয়ে দিল ক্ষুব্ধ জনতা

অরুণাচল প্রদেশে বসবাসকারী নন-অরুণাচল প্রদেশ শিডিউলড ট্রাইবস কমিউনিটি-র মানুষজনকে পিআরসি বা পার্মানেন্ট রেসিডেন্ট সার্টিফিকেট প্রদানের সিদ্ধান্তের কথা জানিয়েছে অরুণাচল সরকার। আর সরকারের এই সিদ্ধান্ত সামনে আসার পরই এর বিরুদ্ধে ক্ষোভ বাড়ছে জনতার মধ্যে। সরকারি এই সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে স্লোগান দিতে দিতে রবিবার একদল বিক্ষোভকারী পৌঁছে যান রাজ্যের উপমুখ্যমন্ত্রী চৌনা মেই-এর বাড়িতে। তারপর কিছু বুঝে ওঠার আগেই বাড়িটিতে আগুন ধরিয়ে দেন। দ্রুত পদক্ষেপ করে পুলিশ। শূন্যে গুলি চালিয়ে বিক্ষোভকারীদের সেখান থেকে হটিয়ে দেয় তারা।

অবস্থা যে রাজ্যে ক্রমশ খারাপ হচ্ছে তা মেনে নিয়েছেন রাজ্যের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী কুমার ওয়াই। সরকার অবস্থা সামাল দিতে সবরকম চেষ্টা করছে বলে জানান তিনি। এদিকে গত শনিবারই বিক্ষোভকারীরা ইটানগর ও নাহারলাগুন শহরে ২টি পুলিশ স্টেশনে আগুন ধরিয়ে দেয়। গোটা পুলিশ স্টেশন তছনছ করে দেন তাঁরা। খোদ এসপি পর্যন্ত বিক্ষোভকারীদের আটকাতে গিয়ে আহত হন। অবস্থা সামাল দিতে এই ২ শহরেই কার্ফু জারি করা হয়েছে।

উপমুখ্যমন্ত্রীর বাড়িতে আগুন লাগানোর ঘটনায় আর কোনও ঝুঁকি না নিয়ে মুখ্যমন্ত্রী পেমা খান্ডুর বাড়ির চারপাশে নিচ্ছিদ্র নিরাপত্তা বলয় তৈরি করা হয়েছে। সেখানেও কার্ফু জারি করা হয়েছে। এদিকে নাহারলাগুন শহরে ১ বিক্ষোভকারীর গুলিবিদ্ধ হয়ে মৃত্যুর খবর মিলেছে। অবস্থা কার্যতই ভয়ংকর।


(সংবাদ সংস্থার সাহায্য নিয়ে লেখা)

Show More

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button