National

মন কি বাত-এ কৃষি বিলের পক্ষে জোড়াল সওয়াল করলেন প্রধানমন্ত্রী

মাসের শেষ রবিবার মানেই প্রধানমন্ত্রীর মন কি বাত। এবারের মন কি বাত-এ জায়গায় পেল কৃষি বিলের পক্ষে প্রধানমন্ত্রীর বক্তব্য।

নয়াদিল্লি : প্রতি মাসের শেষ রবিবার মানেই প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর মন কি বাত অনুষ্ঠান। মাসিক এই রেডিও বার্তায় প্রধানমন্ত্রী নানা বিষয়ে বক্তব্য রেখে থাকেন। এবার ছিল তার ৬৮ তম অধ্যায়। যেখানে প্রত্যাশিতভাবেই প্রধানমন্ত্রীর গলায় উঠে এল কৃষি বিলের কথা।

সংসদে পাশ হওয়া কৃষি বিল নিয়ে সংসদে বেনজির বিক্ষোভ হয়েছে বিরোধীদের তরফে। বিক্ষোভ দেখানোয় শৃঙ্খলাভঙ্গের অভিযোগে ৮ জন সাংসদ সাসপেন্ডও হন।

কৃষি বিল সংসদে পাশ হয়ে যাওয়ার পর তার বিরুদ্ধে ক্রমশ দেশ জুড়ে পারদ চড়ছে। কৃষকরা বিভিন্ন প্রান্তে বিক্ষোভে শামিল হচ্ছেন। দেশ জুড়েই কৃষক আন্দোলন অন্য মাত্রা পাচ্ছে। এই অবস্থায় কৃষি বিলের পক্ষে সওয়াল করলেন প্রধানমন্ত্রী।

প্রধানমন্ত্রী এদিন মন কি বাত-এ বলেন, কৃষি বিল কৃষকদের স্বপক্ষে যাবে। আত্মনির্ভর ভারত গড়তে এই বিল সহায়ক ভূমিকা পালন করবে। এই বিল কৃষকদের জন্য ভালই করবে বলেও জানিয়েছেন তিনি।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, কৃষকরাই দেশকে আত্মনির্ভর করে গড়ে তুলতে বড় ভূমিকা পালন করছেন। তাঁরা শক্তিশালী হলে দেশও শক্তিশালী হবে। আর কৃষকদের শক্তিশালী করতে কৃষি বিল সহায়ক ভূমিকা নেবে।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, কৃষি বিলের হাত ধরে কৃষকরা এখন তাঁদের উৎপাদন যে কাউকে বিক্রি করতে পারবেন। যাঁকে খুশি বিক্রি করতে পারবেন। কেবল সরকারকেই বেচতে হবে এমন বাধ্যবাধকতা আর রইল না।

প্রধানমন্ত্রী জানান, এখন কৃষকরা যে ফসলই তাঁর জমিতে ফলাবেন তার সবচেয়ে বেশি দাম তাঁকে যে দেবে তাঁকেই তিনি তা বিক্রি করতে পারবেন। যা কৃষকদের জন্য লাভজনক হবে।

প্রধানমন্ত্রী এদিন বলেন দেশ মহাত্মা গান্ধীর দেখানো কৃষক কেন্দ্রিক অর্থনৈতিক দর্শনের পথে এগোবে। যা ভারতকে খুব দ্রুত আত্মনির্ভর করে গড়ে তুলবে।

কৃষি বিলের পাশাপাশি প্রধানমন্ত্রী এদিন দেশের বিভিন্ন প্রান্তে ছড়িয়ে থাকা লোকগাথা ও সেই সব কাহিনি বলিয়ে লোকজনের কথা তুলে ধরেন। তিনি বলেন এঁরা শিশু শিক্ষাতেও এক বড় ভূমিকা পালন করছেন। তাছাড়া পুরো পরিবারকে জুড়ে রাখতে গল্প বলিয়েদের বড় ভূমিকা রয়েছে।

এছাড়া এই অতিমারি পরিস্থিতিতে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখার ওপরও জোড় দেন প্রধানমন্ত্রী।

Show More

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button