Kolkata

কলকাতা মেডিক্যাল কলেজের ৩ চিকিৎসক করোনা পজিটিভ

একজন কোভিড-১৯ রোগীর চিকিৎসার দায়িত্বে ছিলেন ওই ৩ চিকিৎসক। সেখান থেকেই তাঁদের দেহে সংক্রমণ ছড়ায় বলে মনে করা হচ্ছে।

কলকাতা মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতালের ৩ চিকিৎসক করোনা পজিটিভ। তাঁদের দেহে করোনার অস্তিত্ব পাওয়া গিয়েছে। একজন কোভিড-১৯ রোগীর চিকিৎসার দায়িত্বে ছিলেন ওই ৩ চিকিৎসক। সেখান থেকেই তাঁদের দেহে সংক্রমণ ছড়ায় বলে মনে করা হচ্ছে।

ওই ৩ চিকিৎসক ৬২ বছরের এক মহিলার চিকিৎসা করেছিলেন। ওই মহিলা চার্নক হাসপাতালে ভর্তি হয়েছিলেন। কিন্তু চার্নক হাসপাতাল করোনা সংক্রমণের কারণে সাময়িকভাবে বন্ধ হওয়ার পর তাঁকে কলকাতা মেডিক্যাল কলেজে পাঠানো হয়েছিল।

চার্নক হাসপাতালে এক ডায়ালিসিস করতে আসা রোগীর দেহে করোনা পাওয়া যায়। তাঁর মৃত্যুও হয়। তারপরই চার্নক হাসপাতাল সাময়িকভাবে বন্ধ করা হয়। চার্নক বন্ধ হওয়ার পর ওই ৬২ বছরের কিডনির সমস্যা নিয়ে ভর্তি হওয়া রোগিণীকে কলকাতা মেডিক্যাল কলেজের মেডিসিন বিভাগে ভর্তি করা হয়।

গত ১৩ এপ্রিল ওই মহিলার মৃত্যু হয়। ততক্ষণে তাঁর দেহে করোনার অস্তিত্বও পাওয়া গিয়েছিল। তারপরই কলকাতা মেডিক্যাল কলেজের মহিলা ও পুরুষ মেডিসিন বিভাগ বন্ধ করে দেওয়া হয়।


শুধু মহিলা ও পুরুষ মেডিসিন বিভাগ বন্ধ করে দেওয়াই নয়, চিকিৎসক, স্নাতকোত্তর ছাত্রছাত্রী ও স্বাস্থ্যকর্মীদের কোয়ারেন্টিনে পাঠানো হয়। এবার ৩ চিকিৎসককে করোনা পজিটিভ হিসাবে পাওয়া গেল। এদিকে এসএসকেএম হাসপাতালেরও ৮ চিকিৎসক সহ ১৪ জনকে কোয়ারেন্টিনে পাঠানো হয়েছে। এক করোনা রোগীর সংস্পর্শে আসার পরই তাঁদের কোয়ারেন্টিনে পাঠান হয়।

Show Full Article

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button