Kolkata

বছর শেষে সুখবর, ডিএ ঘোষণা করলেন মুখ্যমন্ত্রী

রাজ্য সরকারি কর্মচারিরা ২০২১ সালে ডিএ পাবেন। কত পাবেন তাও জানালেন মুখ্যমন্ত্রী। আগামী মাসেই এই ডিএ পাবেন রাজ্য সরকারি কর্মচারিরা।

কলকাতা : রাজ্য সরকারি কর্মচারিরা এ বছর যথেষ্ট দোলাচলে ছিলেন। একে করোনা পরিস্থিতির জের রয়েছে। ফলে রাজকোষে একটা ঘাটতি রয়েইছে। গত বছর রাজ্যসরকার বড় অঙ্কের টাকা খরচ করেছে পে কমিশনের বর্ধিত অর্থ প্রদান করতে।

সেখানে প্রতি জানুয়ারিতে যে ডিএ তাঁরা পেয়ে থাকেন তা কী এ বছর পাবেন? প্রশ্নটা ছিল। তবে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এদিন সেই প্রশ্নের উত্তর দিয়ে দিলেন। আর তা সুখবর হয়েই সামনে আসল।

নবান্নে এদিন রাজ্য সরকারি কর্মচারি সংগঠনের সঙ্গে বৈঠকে বসেন মুখ্যমন্ত্রী। সেখানেই তিনি ঘোষণা করেন যে জানুয়ারিতে রাজ্যসরকার মহার্ঘভাতা প্রদান করবে।

এ বছর ৩ শতাংশ মহার্ঘভাতা দেবে রাজ্যসরকার বলে জানান মুখ্যমন্ত্রী। এই ঘোষণার পর করতালি দিয়ে ঘোষণাকে স্বাগত জানান বৈঠকে উপস্থিতি রাজ্য সরকারি কর্মীরা।


মুখ্যমন্ত্রী জানান পে কমিশনের বর্ধিত মাইনে দিতে রাজ্যসরকারের অতিরিক্ত বিপুল অর্থ খরচ হয়েছে। তা সত্ত্বেও রাজ্যসরকার এবার ডিএ যেমন দেয় দেবে। ৩ শতাংশ ডিএ প্রদান করবে তারা।

বিধানসভা নির্বাচন সামনের বছর। সেকথা মাথায় রেখে মুখ্যমন্ত্রী বারবারই দরাজহস্ত হয়ে উঠছেন। তবে যে ঘোষণাই করছেন তা সাধারণ মানুষের উপকারেই লাগছে। এদিনের ডিএ ঘোষণা যেমন রাজ্য সরকারি কর্মচারিদের মুখে হাসি ফোটাল।

ডিএ নিয়ে অবশ্য রাজ্য সরকারি কর্মচারি ফেডারেশনগুলির সঙ্গে রাজ্যসরকারের একটা দড়ি টানাটানি চলছে। এই মামলা আদালতে পৌঁছেছে। এদিকে এখন ২১ শতাংশ ডিএ বকেয়া রয়েছে বলে জানাচ্ছে সংগঠনগুলি। যা আগামী ২০২১ সালে ২৪ শতাংশে পৌঁছে যাবে।

এই বকেয়া ডিএ-র দাবি রয়েছে তাঁদের। কিছু কর্মীর দাবি, সরকার সামনে ভোট বলে এই সামান্য ডিএ দিয়ে মন রাখার চেষ্টা করছে। তবে সব মিলিয়ে ডিএ ঘোষণা অবশ্যই সরকারি কর্মচারিদের আনন্দ দিয়েছে।

এই করোনা পরিস্থিতিতে এই ডিএ পাওয়ার আশাও তাঁরা ছেড়েই প্রায় বসেছিলেন। আশা ছিল একটাই, সামনে ভোট। তাই যদি ডিএ ঘোষণা হয়। অবশেষে সেটা হল।

Show Full Article

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button