Health

অপারেশন এড়িয়ে বাঁচতে হৃদরোগীদের ভরসা দিচ্ছে শুয়োরের ভালভ

শুয়োরের হৃদযন্ত্রটাই বসিয়ে দেওয়া হয়েছিল এক রোগীর দেহে। এবার শুয়োরের হৃদযন্ত্রের একটি ভালভকে ব্যবহার করে হৃদরোগীর অন্য জীবন দিচ্ছেন চিকিৎসকেরা।

সারা বিশ্বেই মানুষের হৃদরোগের সমস্যা দেখা যায়। হৃদরোগীর সংখ্যা বিশ্বে নেহাত কম নয়। এরমধ্যে অনেকে এমনও রয়েছেন যাঁদের বড় ধরনের অপারেশনেরও দরকার পড়ে।

কিন্তু এখন সে সমস্যা অনেকটাই মিটে যেতে চলেছে বলে আশাবাদী হৃদরোগ বিশেষজ্ঞরা। তাঁদের মতে এটা এক যুগান্ত আনতে চলেছে হৃদরোগের চিকিৎসায়।

হৃদরোগীদের ক্ষেত্রে একটা বড় সমস্যা শরীরে অক্সিজেন পৌঁছে দেওয়া রক্তসঞ্চালন কমে যাওয়া। শুয়োরের ভালভ একটি ছোট ধাতব পাতের মধ্যে করে শরীরে প্রবেশ করালে সেই সমস্যা আর হবেনা।

এখন মনে হতে পারে যে হৃদরোগীদের অপারেশন থেকে দূরে রাখতেই তো তাহলে একটা অপারেশন করতে হবে। এই ভালভটা প্রতিস্থাপিত করতেই তো অপারেশন লাগবে।

কিন্তু চিকিৎসকেরা জানাচ্ছেন, তেমনটা ভাবার কারণ নেই। এটি খুবই ছোট একটি ভালভ। যা প্রতিস্থাপিত করতে ১ ঘণ্টারও কম সময় লাগে। তাও আবার বড় কোনও কাটাছেঁড়া ছাড়াই।

কিন্তু একবার এই ভালভ বসিয়ে দিতে পারলে পরবর্তীকালে ওই হৃদরোগী অপারেশন থেকে অনেকটা দূরে থাকতে পারবেন। ভালও থাকবেন। অন্তত এমনই দাবি করছেন চিকিৎসকেরা।

আপাতত এই শুয়োরের ভালভ সামান্য সংখ্যক রোগীর দেহেই প্রতিস্থাপিত করা হয়েছে। পুরোটাই পরীক্ষামূলকভাবে। চিকিৎসকদের দাবি, এতে কিন্তু ১০০ শতাংশ সাফল্য মিলেছে। এখনও পর্যন্ত সব রোগীই ভাল আছেন। ভালভটি ভাল কাজ করছে। আগামী দিনে এই বায়োনিক ভালভ ইমপ্ল্যান্ট চিকিৎসা হৃদরোগের চিকিৎসাকে নতুন দিশা দিতেই পারে। — সংবাদ সংস্থার সাহায্য নিয়ে লেখা

Show More

Leave a Reply

Your email address will not be published.