Kolkata

বড়তলা থানার সামনে কংগ্রেস, সিপিএম, বিজেপি জোট, পুরভোটে বিক্ষিপ্ত অশান্তি

বড়তলা থানার সামনে এক অতিবিরল জোট দেখলেন মানুষজন। যেখানে তৃণমূলের বিরুদ্ধে হাতে হাত মিলিয়ে ঐক্য তৈরি হল কংগ্রেস, বিজেপি ও সিপিএম-এর।

১৭ নম্বর ওয়ার্ডের তৃণমূল প্রার্থী তাঁর ওয়ার্ডে অবাধে ছাপ্পাভোট করাচ্ছেন। এই নিয়ে সকাল থেকে সব জায়গায় তাঁরা জানিয়েছেন। কিন্তু তাতে কাজের কাজ কিছু হয়নি। ফলে দুপুরে উত্তর কলকাতার বড়তলা থানার সামনে তাঁরা একসঙ্গে প্রতিবাদে শামিল হয়েছেন। এমনই জানালেন কংগ্রেস, সিপিএম ও বিজেপি সমর্থকেরা।

এদিন ছাপ্পা ভোটের প্রতিবাদে থানার সামনে রাস্তায় বসে প্রতিবাদে শামিল হন কংগ্রেস ও সিপিএম প্রার্থী ও কর্মীরা। পরে সেখানে যোগ দেয় বিজেপিও। ৩ বিরোধী দলের পতাকা হাতে পাশাপাশি বসে তৃণমূলের বিরুদ্ধে স্লোগানের ঝড় ওঠে।

কলকাতায় পুরভোটে সকাল থেকেই টুকটাক অশান্তি চলছিল। সকালেই বিজেপির মীনাদেবী পুরোহিত দাবি করেন তাঁর পোশাক ছিঁড়ে তাঁকে হেনস্থা করা হয়েছে।

সকালে শিয়ালদহ এলাকায় বোমাবাজির ঘটনা ঘটে। ভোট চলাকালীন টাকি বয়েজের কাছে বোমা পড়ে বলে অভিযোগ। বোমার আঘাতে আহত হন একাধিক মানুষ।

বেলেঘাটার ৩৬ নম্বর ওয়ার্ডেও বোমাবাজির ঘটনা ঘটেছে এদিন। একটি স্কুলে হয়েছিল বুথ। সেই খান্না স্কুলের কাছে বোমা পড়ে। বেশ কয়েকটি বুথ থেকে হাতাহাতির খবর মিলেছে।

Kolkata News
ভোট দিলেন মিশনারিজ অফ চ্যারিটির সন্ন্যাসিনীরা, ছবি – আইএএনএস

এদিন যেখানেই অশান্তি হয়েছে সেখানেই বিভিন্ন দল বিরোধী অন্য দলের দিকে আঙুল তোলে। যেমন টাকি স্কুলের সামনে বোমাবাজির জন্য তৃণমূল আঙুল তুলেছে কংগ্রেসের দিকে। আবার কংগ্রেসের দাবি বোমাবাজি করেছে বিজেপি।

বড়বাজার থেকেও টুকটাক অশান্তির খবর মিলেছে। তবে সব মিলিয়ে এদিন বড় কোনও অশান্তি নেই। ভোট মিটেছে শান্তিতেই।

Show More

Leave a Reply

Your email address will not be published.