Kolkata

মস্তিষ্কে রক্তক্ষরণ, হাসপাতালে ভর্তি রাজ্যের মন্ত্রী নির্মল মাজি

মস্তিষ্কে রক্তক্ষরণ হচ্ছে মন্ত্রী নির্মল মাজির। তাঁর ১ দিনের মধ্যেই অস্ত্রোপচারের সম্ভাবনা রয়েছে।

কলকাতা : গত কয়েকদিন ধরেই তিনি অসুস্থ ছিলেন। তারমধ্যে অবশ্য কাজ থেমে থাকেনি। করোনা চিকিৎসার সবদিক দেখাশোনা করতে রাজ্যের শ্রম প্রতিমন্ত্রী নির্মল মাজি কাজ চালিয়ে যাচ্ছিলেন। বৃহস্পতিবার সকালে তাঁর মাথার যন্ত্রণা বাড়তে থাকে। ক্রমশ তা অসহ্য পর্যায়ে পৌঁছয়। দ্রুত তাঁকে এসএসকেএম হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে তাঁর পরীক্ষা হয়। তাঁকে বাঙুর ইন্সটিটিউট অফ নিউরোলজিতেও নিয়ে যাওয়া হয়।

নির্মল মাজির মস্তিষ্কে এতটা যন্ত্রণার কথা মাথায় রেখে তাঁর দ্রুত সিটি স্ক্যান করা হয়। সেই সিটি স্ক্যানের পর চিকিৎসকেরা জানান তাঁর সাবডুয়াল হেমাটোমা ধরা পড়েছে। ফলে তাঁর মস্তিষ্কে অস্ত্রোপচার করতে হবে। তাঁর পরিস্থিতির দিকে নজর রাখতে ইতিমধ্যেই একটি চিকিৎসক দল গঠন করা হয়েছে। দলটি নির্মল মাজির ওপর নজর রাখছে।

উলুবেড়িয়া উত্তর-এর বিধায়ক নির্মল মাজির অবস্থা স্থিতিশীল বলেই জানিয়েছেন চিকিৎসকেরা। তিনি কথা বলছেন। পরিবারের লোকজনের সঙ্গেও কথা বলেছেন। খবর পেয়ে তাঁর খোঁজ নেন অনেকে। নির্মল মাজির মস্তিষ্কে রক্তক্ষরণের কারণ এখনও অবশ্য স্পষ্ট করে জানা যায়নি। তবে ইদানিং তিনি প্রবল ব্যস্ততার মধ্যে কাটাচ্ছিলেন। কাজের চাপ ছিল।

নির্মল মাঝি রাজ্যের মন্ত্রী হওয়ার পাশাপাশি মেডিক্যাল কলেজে করোনা চিকিৎসা দেখভালের দায়িত্বে ছিলেন। রাজ্যসরকার মেডিক্যাল কলেজকে করোনা হাসপাতাল করেছে। এখানে প্রতিদিনই করোনা রোগীর ভিড় লেগে থাকছে। সেখানে যাতে সবাই ঠিকভাবে চিকিৎসা পান, চিকিৎসক, নার্স বা স্বাস্থ্যকর্মীদের কোনও সমস্যা না হয়, সবদিক নির্মল মাজি নজরে রাখছিলেন। এমনকি যদি ভর্তির সমস্যা হয় তাহলেও তিনি নিজে জানিয়েছিলেন তাঁর সঙ্গে যোগাযোগ করতে। করোনা রোগী ও তাঁদের পরিবারের পাশে থাকছিলেন তিনি।


সেই নির্মল মাজি নিজেই অসুস্থ হয়ে হাসপাতালে ভর্তি। আপাতত তাঁর শারীরিক পরিস্থিতির দিকে কঠোর নজর রেখেছেন চিকিৎসকেরা। অস্ত্রোপচার শুক্রবারই হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। তাঁর দ্রুত সুস্থতা কামনা করেছেন রাজ্যের অনেক নেতাই। নির্মল মাজির শরীর নিয়ে অনেকেই চিন্তিত। পরিবারও প্রবল উদ্বেগের মধ্যে রয়েছে।

Show Full Article

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button