Entertainment

উর্ধ্বাঙ্গ উন্মুক্ত অবস্থায় নায়কের শরীরে লেপ্টে থাকা, সেদিনের অনুভূতি মনে পড়ল তাঁর

শরীরের উর্ধ্বাঙ্গ সম্পূর্ণ সুতোহীন। সেই অবস্থায় ক্যামেরার সামনে নায়কের শরীরে লেপ্টে থাকা। বিজ্ঞাপনের জন্য সেই শ্যুটিংয়ের অনুভূতি মনে পড়ল তাঁর।

তিনি তখন কিশোরী। ১৮ বছর বয়স। ওই বয়সে তিনি একটি বিজ্ঞাপনে অভিনয়ের সুযোগ পান। সুযোগটাও আসে তখনকার এক প্রথমসারির অভিনেতার সঙ্গে।

শর্ত ছিল ক্যামেরার সামনে তাঁকে উর্ধ্বাঙ্গের পোশাক খুলে ফেলতে হবে। তারপর নায়কের শরীরের সঙ্গে একেবারে লেপ্টে যেতে হবে।

এক ১৮ বছরের কিশোরীর জন্য এভাবে উর্ধ্বাঙ্গ সম্পূর্ণ উন্মুক্ত করে অন্য পুরুষের শরীরের সঙ্গে লেপটে যাওয়া সহজ কাজ ছিলনা। আজ ৪৮ বছর বয়সে এসেও তাঁর সেদিনের কথা মনে যায়।

সেকথাই তিনি ভাগ করে নিয়েছেন একটি সাক্ষাৎকারে। সেখানে তিনি জানিয়েছেন, ওই শ্যুটিংয়ের আগে থেকে তিনি ভয়ে গুটিয়ে গিয়েছিলেন। এভাবে পোশাক খোলাটা তাঁর কাছে একটা আতঙ্কের বিষয় হয়ে গিয়েছিল। নিষ্পাপ শরীর মন কোনও কিছুই সায় দিচ্ছিল না।


শ্যুটিংয়ের দিন তো তিনি এতটাই মানসিকভাবে বিধ্বস্ত হয়ে পড়েন যে তাঁকে চিকিৎসকের পরামর্শ নিতে হয়। সে সময় তাঁকে ভ্যালিয়াম খেতে দেন চিকিৎসক। অবশেষে তিনি জামা খুলে সেদিন খোলা শরীরেই নায়কের শরীরে লেপ্টে গিয়েছিলেন। বিজ্ঞাপনও সফল হয়েছিল।

তবে বিজ্ঞাপনের পরও তিনি মানসিকভাবে একটাই বিধ্বস্ত ছিলেন যে প্রায় ২ সপ্তাহ বিছানা ছাড়েননি। বিশ্বের অন্যতম সফল সুপারমডেল কেট মস তাঁর স্মৃতিচারণায় জানান আজও তিনি সেদিনের বিখ্যাত অভিনেতা মার্ক ওয়ালবার্গের শরীর লেপ্টে সেই আতঙ্কের শ্যুটিং ভুলতে পারেননি। যদিও মার্ক পরে জানিয়েছেন সেদিন তাঁর কোনও সমস্যা হয়নি। ছিলনা কোনও জড়তাও। — সংবাদ সংস্থার সাহায্য নিয়ে লেখা

Show Full Article

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button