Lifestyle

থুতু ছেটাননি, সাফাই দিলেন জাভেদ হাবিব

তিনি মোটেও থুতু ছেটাননি। পুরোটাই অভিনয় ছিল। এমনই দাবি করে অবশেষে মুখ খুললেন বিখ্যাত হেয়ার স্টাইলিস্ট জাভেদ হাবিব।

তিনি আদৌ সেদিন থুতু ছেটাননি। ওই তরুণীর মাথায় থুতু ছেটানোর ওটা ছিল এক ধরনের অভিনয়। তবে তা কিছু কোণা এবং দূরত্ব থেকে দেখে মনে হয়েছিল যে তিনি থুতু ছেটালেন। তিনি একজন শিক্ষক। আর শেখানোর সময় তিনি মজা করতে ভালবাসেন। তবে কেউ যদি তাঁর আচরণে আঘাত পেয়ে থাকেন তাহলে তিনি ক্ষমা চেয়ে নিচ্ছেন। এই ভাষাতেই সাফাই দিয়ে এবার নীরবতা ভাঙলেন বিখ্যাত হেয়ার স্টাইলিস্ট জাভেদ হাবিব।

হাবিবের দাবি, তিনি ভারতে চুল কাটার দিশা বদলে দিতে চেষ্টা করছেন। তাঁর হাজার হাজার ছাত্রছাত্রী রয়েছেন। বহু মানুষ তাঁর কাছে শিখে এখন প্রতিষ্ঠিত। তাঁর ছাত্রছাত্রীরা কেউ কোথাও চুল কাটার সময় এমন কাজ করেননা।

চলতি সপ্তাহের শুরুর দিকে উত্তরপ্রদেশের মুজফ্ফরপুরে একটি প্রশিক্ষণ শিবির চলছিল। সেখানে উপস্থিত শিক্ষানবিশদের চুল কাটার খুঁটিনাটি বোঝাচ্ছিলেন বিখ্যাত হেয়ার স্টাইলিস্ট জাভেদ হাবিব।

ভারতের এই হেয়ার স্টাইলিস্টকে এক ডাকে চেনেন সকলে। যিনি চুলে হাত দেওয়া মানে চুল অন্য জীবন পাওয়া। সেই জাভেদ হাবিব বোঝানোর সময় উত্তরপ্রদেশে হওয়া ওই শিবিরে এক তরুণীকে মডেল হিসাবে বসিয়েছিলেন।

তাঁর চুলকে সুন্দর করে তোলার পাশাপাশি হাবিব সকলকে বোঝাচ্ছিলেন কি করা উচিত। সেই সময় তাঁকে বলতে শোনা যায় যদি চুল কাটার সময় হাতের কাছে জল না থাকে তাহলে সেই হেয়ার স্টাইলিস্ট কি করবেন?

জাভেদের পরামর্শ দেন তখন তিনি যাঁর চুল কাটছেন তাঁর চুলে থুতু ছিটিয়ে দিয়ে কাজ চালাবেন। এটা বলার সময় তাঁকে ওই তরুণীর চুলে থুতু ছিটিয়ে দিতে দেখা যায়। জলের বদলে থুতু দেওয়াকে হাবিব সঠিক কাজ বলে তুলে ধরতে গিয়ে বলেন, এই থুতুতে জীবন আছে।

এই ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়ায় আলোড়ন ফেলে দেয়। অধিকাংশ মানুষই এমন কাণ্ডের প্রবল সমালোচনা করেন। তখনকার মত চুপ থাকলেও অবশেষে নীরবতা ভাঙলেন হাবিব। — সংবাদ সংস্থার সাহায্য নিয়ে লেখা

Show More

Leave a Reply

Your email address will not be published.