National

দেশে তৈরি বিশ্বের উচ্চতম রেল ব্রিজ, বাকি সোনালি সংযোগ, তারপরই চালু যাতায়াত

সোনালি সংযোগ এখন কেবল সময়ের অপেক্ষা। তারপরই চালু হয়ে যাবে বিশ্বের উচ্চতম রেল ব্রিজ। যা এ দেশেই তৈরি হয়েছে। গোটা বিশ্বের সামনে এ এক বিরল কৃতিত্ব।

ব্রিজের বাকি অংশের কাজ হয়ে গেছে। ২ দিক থেকে ওঠা ২টি পাহাড়ের গায়ে অত্যাধুনিক ইঞ্জিনিয়ারিংয়ের ছোঁয়ায় শক্তিশালী আর্চ তৈরি হয়েছে। এবার ২টি দিককে জুড়ে দেওয়ার পালা। মাঝখানটা জুড়ে গেলেই ব্রিজ তৈরি।

এই মাঝখানটা জুড়ে যাওয়াকে বলা হয় গোল্ডেন জয়েন্ট বা সোনালি সংযোগ। সামনের সপ্তাহেই হতে পারে এই সংযোগের কাজ। ব্যস তারপরই চালু করার অবস্থায় চলে আসবে ব্রিজটি। ওইটুকু কাজই বাকি।

আর একবার চালু হলে এটাই হবে বিশ্বের উচ্চতম ব্রিজ। চন্দ্রভাগা নদীর ওপর তৈরি এই ব্রিজ প্যারিসের আইফেল টাওয়ারের চেয়েও উঁচু।

আইফেল টাওয়ার ৩৩০ মিটার লম্বা আর চন্দ্রভাগার ওপর এই ব্রিজের উচ্চতা ৩৫৯ মিটার। ১০ তলা বাড়িও এর নিচে থাকবে। ১ কিলোমিটার ৩১৫ মিটারের এই ব্রিজ চালু হলে কাশ্মীরের উধমপুর-শ্রীনগর-বারামুলা ট্রেন যোগাযোগের বহুদিনের স্বপ্নের পরিকল্পনা বাস্তবায়িত হবে। বহু মানুষের যাতায়াত সুগম হবে। পর্যটনও গতি পাবে।

এই ব্রিজ তৈরি হলে কাশ্মীরের সঙ্গে দেশের বাকি অংশের যোগাযোগ আরও শক্তিশালী হবে বলেই মনে করা হচ্ছে। ব্রিজটি এমনভাবেই বানানো হচ্ছে যাতে যে কোনও ঋতুতে, যে কোনও আবহাওয়ায় এই ব্রিজ কার্যকরী থাকে। অবশ্যই এক্ষেত্রে শীতের কঠিন সময়ের কথা মাথায় রাখা হয়েছে।

২ দিকে পাহাড়। নিচে সুগভীর উপত্যকার মাঝ দিয়ে বয়ে যাচ্ছে সিন্ধু নদের প্রধান উপনদী চন্দ্রভাগা। তারই উপরে ২টি পাহাড়ের মধ্যে সংযোগ করেই তৈরি হচ্ছে এই উচ্চতম সেতু। — সংবাদ সংস্থার সাহায্য নিয়ে লেখা

Show More

Leave a Reply

Your email address will not be published.