National

পাকিস্তানে গিয়ে জঙ্গি ঘাঁটি ধ্বংস করা হয়েছে, জানাল সেনা

তারা যেভাবে পাকিস্তানের মাটিতে জঙ্গি ঘাঁটিতে আক্রমণ করতে চেয়েছিল তেমনই করা হয়েছে। সেখানে বোমা ফেলা হয়েছে। তার প্রমাণও তাদের কাছে আছে। বৃহস্পতিবার স্থল, বায়ু ও নৌ সেনার তরফে যৌথ সাংবাদিক সম্মেলনে এমনই দাবি করা হল।

মিরাজ ২০০০ নিয়ে পাকিস্তানে ঢুকে জঙ্গি ঘাঁটিতে হামলা চালায় ভারতীয় বায়ুসেনা। সেই হামলার পর পাকিস্তান দাবি করছিল ভারত ফাঁকা জায়গায় বোমা ফেলেছে। পাকিস্তান তাড়া করতে ভারতীয় বায়ুসেনার বিমানগুলি পালিয়ে যায়। বৃহস্পতিবার সে প্রশ্নের উত্তরে বায়ুসেনার এয়ার ভাইস মার্শাল জানিয়ে দিলেন তাঁদের হাতে ওই বিমান হানার যাবতীয় তথ্য আছে। জঙ্গি ঘাঁটিতে হামলা চালানো হয়েছে।

পাকিস্তান যে ভারতীয় সীমায় ঢুকে এফ-১৬ দিয়ে ক্ষেপণাস্ত্র ছুঁড়েছে তাও এদিন দাবি করে সেনা। তারও প্রমাণ তাদের হাতে রয়েছে। ক্ষেপণাস্ত্রের ধ্বংসাবশেষ তারা পেয়েছে। পাকিস্তানের কাছে একমাত্র ভাল যুদ্ধবিমান বলতে এফ-১৬ আছে। আর ওটিই ওই ক্ষেপণাস্ত্র ছুঁড়তে পারে। ফলে এফ-১৬ দিয়েই যে ভারতের সেনা শিবিরে হামলার চেষ্টা পাকিস্তান করেছে তা এদিন পরিস্কার করে দাবি করেছেন ৩ সেনা আধিকারিক।

ভারতীয় বায়ুসেনার পাইলট অভিনন্দন বর্তমানের মিগ-২১ যে পাকিস্তানের মাটিতে ভেঙে পড়ে তাও মেনে নিয়েছে ভারতীয় সেনা। পাকিস্তানের বিমানগুলিকে তাড়া করতে গিয়ে মিগ-২১টি যে ধ্বংস হয় তাও মেনে নেন সেনার আধিকারিকরা। ৩ বাহিনীর তরফেই এদিন পরিস্কার করে দেওয়া হয় তাঁরা যথেষ্ট সতর্ক আছেন। স্থলসেনার তরফে জানানো হয় ভারত পাকিস্তানে ঢুকে জঙ্গি ঘাঁটিতে হামলা চালানোর পর সীমান্তে ৩৫ বার সংঘর্ষ বিরতি লঙ্ঘন করেছে পাক সেনা। গুলি ও মর্টার বর্ষণ করেছে। জবাব দিয়েছে ভারত। ভারত সতর্ক রয়েছে।

জলপথে কোনও হামলা না হলেও সতর্ক রয়েছে ভারতীয় নৌসেনাও। জলপথে কোনও রকম আক্রমণের চেষ্টা হলে তারা যোগ্য জবাব দিতে প্রস্তুত বলে এদিন জানিয়ে দেন নৌসেনা আধিকারিক। — সংবাদ সংস্থার সাহায্য নিয়ে লেখা

Show More

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button