Wednesday , February 19 2020
Rohit Sharma
সিরিজ জেতানো সেঞ্চুরি করে ম্যাচের নায়ক রোহিত শর্মা, ছবি - আইএএনএস

অজিদের উড়িয়ে সিরিজ জেতালেন রোহিত, কোহলি

৩ ম্যাচের সিরিজে প্রথম ম্যাচে ভারতকে কার্যত উড়িয়ে দিয়ে চ্যালেঞ্জ ছুঁড়ে দিয়েছিল অস্ট্রেলিয়া। বুঝিয়ে দিয়েছিল হারতে তারা আসেনি। কিন্তু রাজকোটে ঘুরে দাঁড়ায় ভারত। দ্বিতীয় ম্যাচে বড় রান করে অজিদের পরাস্ত করে বিরাটবাহিনী। ফলে এদিনের তৃতীয় ম্যাচ ছিল ফাইনাল। যে জিতবে সিরিজ তার। আর সেই ম্যাচ রোহিত শর্মা ও বিরাট কোহলির ব্যাট জিতিয়ে দিল। দুজনের দুরন্ত ব্যাটিংয়ে ভরসা করে সিরিজও ২-১ ব্যবধানে জিতে নিল ভারত। ম্যান অফ দ্যা ম্যাচ হলেন রোহিত শর্মা।

বেঙ্গালুরুর চিন্নাস্বামী স্টেডিয়ামে টস জেতে অস্ট্রেলিয়া। টস জিতে গতবার ভারতকে ব্যাট করতে পাঠিয়ে হেরেছিল অজিরা। তাই এদিন টস জিতে প্রথমে ব্যাট করার সিদ্ধান্ত নেয় তারা। বড় রানের ইনিংস গড়ার লক্ষ্যে নেমে এদিন প্রথমেই ওয়ার্নার (৩) ও ফিঞ্চ (১৯)-এর উইকেট হারিয়ে চাপে পড়ে যায় অজিরা। কিন্তু তারপরই স্মিথ ও ল্যাবুশেন খেলার হাল ধরেন। ২ জনে উইকেটে শুধু দাঁড়িয়েই যাননি, রানের চাকা দ্রুত ঘোরাতে শুরু করেন। ফলে অজিরা ২ উইকেট হারানোর প্রাথমিক ধাক্কা সামলে ফের খেলায় ফেরে। ল্যাবুশেন ৫৪ রান করে যখন ফেরেন তখন অস্ট্রেলিয়া খেলায় ফিরে এসেছে। বড় রানের পিছনে ছুটছে।

ল্যাবুশেন ফিরলেও ডেঞ্জারম্যান স্মিথ তখনও ক্রিজে ছিলেন। স্টার্ককে কিছু পিঞ্চ হিটের জন্য পাঠালেও তিনি ০ রান করে ফেরেন। এরপর ক্যারি ও স্মিথ ফের খেলা টানতে থাকেন। ক্যারি ফেরেন ৩৫ রান করে। তারপর টার্নার ৪ রান করে ফেরেন। স্মিথ ফেরেন ১৩১ রান করে। অজিরা ৫০ ওভার খেলে ২৮৬ রান তোলে। ২৮৭ করলে জিতবে এই অবস্থায় ভারত খেলতে নামে। তবে অজিরা যখন ব্যাট করছিলেন তখন ভারতীয় ব্যাটিংয়ের বড় ভরসা তথা ফর্মে থাকা শিখর ধাওয়ান ফিল্ডিং করতে গিয়ে কাঁধে চোট পান। ফলে তিনি ব্যাট করতে নামতে পারেননি।

ওপেন করতে নামেন রোহিত শর্মা ও কেএল রাহুল। শুরুতে রোহিত শর্মার বেশ কয়েকবার প্যাডে বল লাগে। প্রায় আউট হতে হতে বাঁচেন। তারপর রোহিত নিজস্ব ছন্দে ফেরেন। রোহিত প্রথমে সেট হতে সময় নেন ঠিকই। কিন্তু সেট হয়ে গেলে তিনি ভয়ংকর। এদিন সেই ভয়ংকর রোহিতকে ফের একবার মাঠে দেখলেন অজি বোলাররা। ছক্কা আর চারের বন্যা বইল মাঠে। রাহুল ১৯ রান করে ফেরার পর রোহিতের সঙ্গে কোহলি জুটি বাঁধেন। দুজনেই এদিন খেলা কার্যত নিজেদের হাতের মুঠোয় নিয়ে নেন।

রোহিত সেঞ্চুরি করেন। ১১৯ রানে তিনি ফিরলে কোহলি ও শ্রেয়স আইয়ার খেলা টানতে থাকেন। পৌঁছে যান জয়ের দোরগোড়ায়। বিরাট যখন ফেরেন ৮৯ রান করে তখন খেলা জেতা সময়ের অপেক্ষা মাত্র। শ্রেয়স আইয়ার এদিন ৪৪ রান করে অপরাজিত থাকেন। মণীশ করেন ৮ রান। ভারত ১৫ বল বাকি থাকতেই ম্যাচ জিতে যায়। সেইসঙ্গে সিরিজও জিতে যায়। এবার ভারত পাড়ি দিচ্ছে নিউজিল্যান্ডে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *