Monday , January 27 2020
Sleeping
প্রতীকী ছবি

এই পরিমাণ ঘুমের অভ্যাস থাকলে সতর্ক হোন, লুকিয়ে আছে বিপদ

রাতে ৯ ঘণ্টার ওপর ঘুমোন এমন মানুষের সংখ্যা নেহাত কম নয়। অনেকেই আছেন রাতে শোয়ার পর বেলা করে ঘুম থেকে ওঠেন। ফলে সব মিলিয়ে ৯ ঘণ্টার ওপর ঘুম হয়েই যায়। অনেকে মনে করেন বেশি ঘুম মানে বেশি ঝরঝরে থাকা। ভাল থাকা। কিন্তু এই অতি বিশ্রামে লুকিয়ে আছে বিপদ। গবেষকরা তাই বলছেন।

গবেষকরা বলছেন যাঁরা ৯ ঘণ্টার ওপর প্রাত্যহিক ঘুমে অভ্যস্ত তাঁদের স্ট্রোকের সম্ভাবনা ২৩ শতাংশ বেশি থাকে। আবার অনেকে দুপুরে পাওয়ার ন্যাপ নিয়ে থাকেন। সহজ কথায় দুপুরে একটু বিছানায় গড়িয়ে নেওয়া। অনেকে মনে করছেন পাওয়ার ন্যাপ নিলে নতুন করে দেহে এনার্জি সঞ্চারিত হয়। কিন্তু তা আদপেও নয়। গবেষকরা সতর্ক করে জানিয়েছেন দুপুরে ন্যাপ নিতে গিয়ে যাঁরা দেড় ঘণ্টা ঘুম দেন তাঁদের হৃদরোগের সম্ভাবনা ২৫ শতাংশ বেড়ে যায়।

তাহলে কতক্ষণ ঘুমের জন্য সঠিক সময়? গবেষকরা বলছেন ৭ ঘণ্টা থেকে ৮ ঘণ্টার মধ্যে প্রাত্যহিক ঘুম শরীরের জন্য সবচেয়ে বেশি উপকারি। চিনের গবেষকরা জানাচ্ছেন অতি ঘুম বা ন্যাপ নেওয়া মানুষের দেহে কোলেস্টেরল বাড়িয়ে দেয়। তাঁদের কোমর চওড়া হতে থাকে। যা হৃদরোগের সম্ভাবনা বাড়িয়ে দেয়। তবে ৯ ঘণ্টার ওপর প্রাত্যহিক ঘুম বা দুপুরের ন্যাপের সঙ্গে একদম কীভাবে স্ট্রোকের সম্ভাবনা জড়িয়ে আছে তা জানতে আরও গবেষণার প্রয়োজন রয়েছে। — সংবাদ সংস্থার সাহায্য নিয়ে লেখা

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *