Health

স্বীকৃতি পেল বিশ্বের প্রথম করোনার ওষুধ

ইঞ্জেকশনের মাধ্যমে টিকা দেওয়ার কাজ জোর কদমে চলছে বিশ্বজুড়ে। এর মধ্যেই করোনা রোগীদের জন্য স্বীকৃতি পেল বিশ্বের প্রথম করোনা রোধী ট্যাবলেট।

করোনার ওষুধ সেই অর্থে এতদিন ছিলনা। অন্য রোগ সারানোর ওষুধকে কাজে লাগিয়ে করোনা রোগীদের চিকিৎসার চেষ্টা চলছিল। অবশেষে অন্য ভাইরাল রোগের ওষুধ দিয়ে করোনা রোগীদের চিকিৎসার দরকার আর রইল না। এবার মান্যতা পেল বিশ্বের প্রথম করোনা প্রতিরোধক ট্যাবলেট।

ব্রিটেন এই ওষুধটিকে স্বীকৃতি দিল। মোলনুপিরাভির নামে ওষুধটি এতদিন অপেক্ষায় ছিল স্বীকৃতির। অবশেষে করোনা রোগীদের চিকিৎসায় তা মান্যতা পেল। এটাই হল বিশ্বের প্রথম করোনা সারানোর ট্যাবলেট।


পড়ুন আকর্ষণীয় খবর, ডাউনলোড নীলকণ্ঠ.in অ্যাপ

রিজবাক বায়োথেরাপিউটিকস নামে সংস্থা এই ওষুধটি তৈরি করেছে। এরফলে ব্রিটেনই হল বিশ্বের প্রথম দেশ যারা করোনা সারাতে কোনও খাওয়ার ওষুধকে স্বীকৃতি দিল।

প্রস্তুতকারক সংস্থার তরফে জানানো হয়েছে ওষুধটি অল্প বা মাঝারি করোনা সংক্রমণের শিকার রোগীদের ক্ষেত্রে উপকারি হবে। কারণ এই ওষুধ তাঁদের করোনা থেকে মৃত্যু বা হাসপাতালে পৌঁছে যাওয়ার সম্ভাবনা অর্ধেক করে দেবে।

করোনার বিরুদ্ধে লড়াইয়ে মোলনুপিরাভির এক যুগান্ত তৈরি করল সন্দেহ নেই। তবে তা স্বীকৃতি পেতে সময় লাগল কারণ সবদিক বারবার খতিয়ে দেখে তবেই এই ওষুধকে স্বীকৃতি দিল ব্রিটেন।

এই ওষুধটি যদি করোনা রোগীদের ক্ষেত্রে কার্যকর হতে থাকে তাহলে একাধারে টিকা ও করোনা হলেও এই ওষুধের প্রয়োগ করোনাকে অনেকটাই দমিয়ে দিতে পারবে বলে মনে করছেন বিশেষজ্ঞেরা। প্রসঙ্গত অনেক দেশেই কিন্তু করোনা রুখতে এমন খাওয়ার ওষুধ তৈরির চেষ্টা চালাচ্ছেন গবেষকরা। — সংবাদ সংস্থার সাহায্য নিয়ে লেখা

Show More

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *