Health

করোনায় মৃত্যুর প্রশ্নে আমূল বদলে গেল সিগারেট নিয়ে ধারনা

যাঁরা সিগারেট খেতে অভ্যস্ত তাঁদের ক্ষেত্রে করোনায় মৃত্যুর সম্ভাবনা কতটা? কতটাই বা হাসপাতালে ভর্তি হওয়ার সম্ভাবনা? এর উত্তর আমূল পাল্টে গেল ১ বছরের ব্যবধানে।

করোনা তখন তার প্রাথমিক পর্যায়ে। ২০২০ সালের প্রথম দিক। বিভিন্ন দেশে শুরু হয়েছে লকডাউন। বিজ্ঞানীরা উঠেপড়ে লেগেছেন করোনাকে চিনতে।

সেই সময় গবেষকদের একাংশের দাবি বিজ্ঞানীদেরও বিভ্রান্তিকর বলে মনে হয়েছিল। তাঁরাও কিছুটা হতবাক হন। তখন বলা হয় সিগারেট যাঁরা খেতে অভ্যস্ত তাঁদের করোনা আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হওয়ার সম্ভাবনা বা করোনার জেরে মৃত্যুর সম্ভাবনা, যাঁরা ধূমপায়ী নন তাঁদের চেয়ে কম।

সারা বিশ্বের ধূমপায়ীরা এই তত্ত্ব সামনে আসার পর বেজায় খুশি হয়ে পড়েন। এমনকি অনেকের ধারনা হয় ধূমপান করলে করোনা গলায় বাসাই বাঁধতে পারবেনা!

সেই তত্ত্ব কিন্তু দীর্ঘ সময় ধরে সাধারণ মানুষ কেন বিজ্ঞানীদেরও মনে চেপে বসেছিল। কিন্তু গবেষণা থামেনি। অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয় সিগারেট খাওয়ার সঙ্গে করোনার সম্পর্ক নিয়ে দীর্ঘ গবেষণার পর এবার কিন্তু একদম উল্টো ধারনা দিল।

অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয় গবেষকদের আগের তত্ত্বকে নস্যাৎ করে জানিয়ে দিয়েছেন সিগারেট পান করতে যাঁরা অভ্যস্ত তাঁদের করোনা হলে হাসপাতালে ভর্তি হওয়ার সম্ভাবনা ৮০ শতাংশ। মৃত্যুর সম্ভাবনাও সাধারণ মানুষের থেকে ৮০ শতাংশ বেশি।

অর্থাৎ ধূমপায়ীদের করোনা হলে তা বাড়াবাড়ির পর্যায়ে পৌঁছে যাওয়া এবং করোনা থেকে মৃত্যু হওয়ার সম্ভাবনা ৮০ শতাংশ বেশি।

যা কার্যত ২০২০-তে পেশ হওয়া তত্ত্বকে সম্পূর্ণ উল্টে দিল। এই গবেষণার ফল সামনে আসার পর এবার কিন্তু যাঁরা ধূমপায়ী তাঁদের সতর্ক হওয়ার সময় এসেছে। — সংবাদ সংস্থার সাহায্য নিয়ে লেখা

Show More

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button