Sunday , February 24 2019
Health Tips

সিজন চেঞ্জে সর্দিকাশি প্রতিরোধে ডাক্তারের টিপস

খুব সহজে ঘরোয়া খাবারের মাধ্যমেই সারিয়ে ফেলা যায় সিজন চেঞ্জে ঠান্ডা লাগা থেকে সর্দিকাশির খুচরো সমস্যা। বাচ্চা থকে বয়স্ক সকলেই নিয়মিত খেতে পারেন ভিটামিন সি। সকালে খালি পেটে খেতে পারেন উষ্ণ গরম জল ও পাতিলেবুর রস। কলা ও লাল-হলুদ-সবুজ ক্যাপসিকামও বেশ উপকারি। এগুলিতে থাকে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন সি। যাঁরা প্রতিনিয়ত সর্দিকাশির সমস্যায় নাজেহাল, তাঁরা বেশি করে জল ও ফল খেলে উপকার পাবেন। তবে অবশ্যই সবুজ শাকসবজি যেন বাদ না যায়। লো ফ্যাট ও হাই ফাইবার ডায়েটের পাশাপাশি বিশ্রামও প্রয়োজন যথেষ্ট পরিমাণে। তাহলেই কেল্লাফতে।

একটা রুটিনে নিজেকে বেঁধে ফেলে প্রতিদিন অন্তত একটি করে লেবু জাতীয় ফল খাওয়ার অভ্যাস উপকারি। চিকিৎসক শক্তিজ্যোতি বিশ্বাস ভিটামিন সি-এর গুণাগুণ ব্যাখ্যা করতে গিয়ে জানালেন, ক্রনিক সর্দিকাশি সারিয়ে তুলতে সহায়তা করে ভিটামিন সি। এছাড়া ভিটামিন সি-তে থাকে প্রটেক্টিভ ফ্যাক্টর যা শরীরের পরিপাকতন্ত্রের প্রক্রিয়ার উন্নতি ঘটিয়ে সর্দিকাশির সমস্যার সঙ্গে মোকাবিলা করার ক্ষমতা যোগায়। চিকিৎসক বিশ্বাসের মতে, সিজন চেঞ্জের সময় বেশি করে স্ট্রবেরি, পেঁপে, পেয়ারা, টমাটো, কড়াইশুঁটি ও পালংশাক খেলে তা শরীরের রোগের সাথে লড়াই করার ক্ষমতা বাড়ায়। এর সঙ্গে আরও উপকারি প্রতিদিন নিয়ম করে একটা লেবু জাতীয় ফল খাওয়া।


Check Also

Fasting

উপোষের উপকার, ভাল থাকে লিভার, কমে বয়সজনিত সমস্যা

ভারতে আমজনতার জীবনে মূলত আধ্যাত্মিক কারণে উপোষ নামক বিষয়টি নিজের জায়গা করে নিয়েছে। পুজো তাই উপোষ। পুণ্য তিথি তাই উপোষ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *